• ব্রেকিং নিউজ

    নড়িয়ায় পদ্মার তীর ভেঙে নদীতে পরে নিখোজ ৬

    রুদ্রবার্তা প্রতিবেদক

    প্রকাশিত: ০৭ আগস্ট ২০১৮ সময়: ৭:৫০ অপরাহ্ণ 1838 বার

    নড়িয়ায় পদ্মার তীর ভেঙে নদীতে পরে নিখোজ ৬

    পদ্মার তীর ভেঙে নদীতে পরে যাওয়াদের তীরে উঠার আপ্রাণ চেষ্টা

    শরীয়তপুরের নড়িয়ায় পদ্মার ভাঙনের মুখে নদীতে পরে অন্তত ৬ জন নিখোজ রয়েছে। মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) দুপুর ২ টার দিকে নড়িয়া উপজেলার সাধুরবাজার পদ্মার তীরবর্তী এলাকায় আকস্মিকভাবে প্রায় ৫০ মিটার জায়গা ভেঙে যায়।

    এ সময় ২টি মটর সাইকেল, ১টি ইজি বাইক ও ৩টি দোকানসহ পাড়ে অবস্থানরত প্রায় ৩০ জন নদীতে পরে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় প্রায় ২৪ জনকে আহতবস্থায় উদ্ধার করা হয়। আহতদের নড়িয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অন্তত ৬ জন  নিখোজ রয়েছে ।

    নিখোঁজ অন্তু মগদম, গোপী, মোশারফ চোকদার, নাসির হাওলাদার, মজু ছৈয়াল, নাসির করাতির নাম পাওয়া গেছে।

    উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা গেছে, পদ্মা নদীর ডানতীর দীর্ঘদিন যাবত তীব্র গতিতে ভাঙছে। আর সেই ভাঙন দেখতে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে লোক এসে জরো হয় সাধুর বাজারে। প্রতিদিনের মত আজও জরো হয় লোকজন। বিকেল ২ টার দিকে ভূমি ধ্বসের মত বিস্তৃর্ণ এলাকাজুড়ে পদ্মা নদী গর্ভে চলে যায়। তখন ৩টি দোকানসহ অন্তত ৬জন নিখোঁজ হয়। আর আহত হয় প্রায় ২০ জন। আহতদের নড়িয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যারা নিখোঁজ রয়েছে তাদের উদ্ধারে পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও শরীয়তপুর ফায়ার সার্ভিস কাজ করছেন।

    নড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, যারা নিখোঁজ রয়েছেন তাদের উদ্ধারে পুলিশ, নৌ পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কাজ করছে। ছয়জন ছাড়া আর কেউ নিখোঁজ আছে কি না তাও খোজঁ নেয়া হচ্ছে।

    দুর্ঘটনার শিকার সাধুরবাজার এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আব্দুল হাই বক্স বলেন, দুপুরে হঠাৎ করেই দোকান ঘরটি কেঁপে ওঠে। মুহূর্তেই তিনটি দোকানঘরসহ লোকজন পানিতে তলিয়ে যাই। পরে লোকজন পানির ওপরে ভেসে উঠলে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। দুর্ঘটনার সময় সেখানে প্রায় ৪০ জন লোক ছিল।

    নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানজিদা ইয়াসমিন বলেন, ভূমি ধ্বসের মত বিস্তৃর্ণ এলাকাজুড়ে হঠাৎ পদ্মা নদী গর্ভে চলে যায়। তখন ৬ জন নিখোঁজ হয়। আর আহত হয় প্রায় ২০ জন। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। যারা নিখোঁজ ও আহত হয়েছে তাদের পাশে উপজেলা প্রশাসন থাকবে।

    :: শেয়ার করুন ::

    Comments

    comments

    সংবাদটি ফেইসবুকে শেয়ার করুন

    দৈনিক রুদ্রবার্তা/শরীয়তপুর/০৭ আগস্ট ২০১৮/


    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • ফেসবুকে দৈনিক রুদ্রবার্তা

  • error: নিউজ কপি করা নিষেধ!!