• ব্রেকিং নিউজ

    ঘড়িষারে রাতের আধারে হামলা ভাংচুর ও কলা গাছের বাগান কেটে ফেলে দুর্বৃত্তরা

    রুদ্রবার্তা প্রতিবেদক

    প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০১৯ সময়: ৮:২২ পূর্বাহ্ণ 543 বার

    ঘড়িষারে রাতের আধারে হামলা ভাংচুর ও কলা গাছের বাগান কেটে ফেলে দুর্বৃত্তরা

    শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ঘড়িষার ইউনিয়নের সুজাবাজ গ্রামে কথা কাটাকাটি নিয়ে বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর এবং লুটপাটের চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায় গত বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
    এ ঘটনার ব্যাপারে মোঃ আলী আকবর (৩২) সাংবাদিকদের বলেন, গত বুধবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে আমি কাজ করতে ছিলাম, সেখানে মোঃ মুকুল সরদার, প্রতিবন্ধী (৩০)এর সাথে দুস্টামি করলে মুকুল সরদার আমাকে বালু ছুরে মারলে কথা কাটাকাটি হয়। পরে ও চলে যায় আর আমিও কাজ করতে থাকি। পরে রাত প্রায় ১০ টার দিকে রাসেল তালুকদার (৩৫) এর নেতৃত্বে প্রায় ২ থেকে ৩শ লোক দেশীয় অস্ত্র, রাম দা, হকি এবং লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের বাড়ি আসে, এতে আমি টের পেয়ে আমার জীবন রক্ষার্থে পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যাই। এতে আমাকে না পেয়ে আমার বাড়িঘর এবং বেড়া কুপিয়ে যায় এবং লুটপাটেরও চেষ্টা চালায়। এ ছাড়াও পাশের আরো দুটি বাড়ি হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন। এর সাথে সিরাজ বেপারীর ছেলে বাবু বেপারী (২৬) জড়িত রয়েছে বলেও অভিযোগ করেন। এ ছাড়াও ঐ এলাকার বিধবা পিয়ারা বেগম (৫০) এর একটি কলার বাগান কুপিয়ে কেটে ফেলে এবং কলার ছড়া নিয়ে যায় বলে জানান পিয়ারা বেগম। তিনি বলেন, আমার সাথে কারো সাথে কোন শত্রুতা নেই। আমি গরীব মানুষ, আমার স্বামী নেই, কোন রকম জীবন চলে আমার, তার মধ্যে আমার গাছগুলো কেটে আমার গাছে থাকা কলার ছড়া গুলোও নিয়ে যায়। তবে কে বা কারা নিয়েছে এ ব্যাপারে বলতে পারেননি তিনি।এদিকে জানা যায় কলার বাগান থেকে একটু সামনে থাকা শাহ চন্দ্র পুরীর একটি জলশা ঘরও কুপিয়েছে রাতের হামলা কারীরা। জলশা ঘর যারাই কুপিয়েছে তাদের সঠিক বিচার চেয়েছেন স্থানীয় এ তরীকার সভাপতি শাহআলম সরকার (৬৫) এবং সাধারন সম্পাদক সুমন ছৈয়াল (৪৫)। এ ছাড়াও ঘটনার ব্যাপারে মুঠো ফোনে ঘড়িষার ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি মোঃ রাসেল মোল্লার কথা হলে তিনি বলেন, রাসেল তালুকদার সহ তার সাথে থাকা লোকজন আমাক দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছে। এ ছাড়াও মোঃ মোবারক সরদার (৬৫) মোঃ আব্দুর রহমান খাঁন (৫০) সহ স্থানীয় এলাকাবাসী এর সঠিক বিচার চেয়েছেন। এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ রিপন তালুকদারের ভাই রাসেল তালুকদারের কাছে হামলা ও ভাংচুরের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কোন লোকজন নিয়ে হামলা করিনি। আমাকে বলছে যে বোবা মুকুলের সাথে আলি আকবরের ঝগড়া হয়, আমি সে বিষয়ে জানতে আসলে কিছুক্ষন পরেই অনেক পোলাপান এসে ঐ বাড়ির বেড়াঘোরা ভাঙ্গা শুরু করে,আমি ঐ পোলাপান গুলোকে চিনিনা তবে হয়তো তারা ঐ এলাকার হতে পারে।আমাকে আরো বাচাতে ঐ বাড়ির মহিলারা আমাকে ঘিরে রাখে এরপরে আমি আত্মরক্ষার ভয়ে চলি আসি এর থেকে বেশী কিছু আমি জানিনা। জানা গেছে ঘটনার পরে নড়িয়া থানা পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন। এবং স্থানীয়রা এ ব্যাপারটির সঠিক সমাধান দেয়ার কথা রয়েছে বলে জানা গেছে।

    :: শেয়ার করুন ::

    Comments

    comments

    সংবাদটি ফেইসবুকে শেয়ার করুন

    দৈনিক রুদ্রবার্তা/শরীয়তপুর/১৬ মার্চ ২০১৯/


    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত


    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক রুদ্রবার্তা

  • error: নিউজ কপি করা নিষেধ!!