শুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ ইং, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
শুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

শেখ হাসিনা বিশ্বের শ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী : উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম

শেখ হাসিনা বিশ্বের শ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী : উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনা আজকে বিশে^র সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। যেখানেই দূর্যোগ সেখানেই জননেত্রী শেখ হাসিনা মানবতার মা হয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।
বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারী) দুপুরে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার চরভাগা গ্রামে বেগম আশ্রাফুননেছা হাসেম ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র উদ্বোধন শেষে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
এনামুক হক শামীমের মা বেগম আশ্রাফুননেছা হাসেমের নামে ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের নামকরণ করা হয়েছে।
উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেন, ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্রটি করার জন্য আমার মা বেগম আশ্রাফুননেছা জমি দান করেছেন। কিন্তু বড় কষ্টের বিষয় আমার মা আজ বেঁচে নেই। এখানে যারা বসে আছেন সবাই আমাকে কোলে পিঠে করে মানুষ করেছেন। আমি আপনাদের জন্য এই হাসপাতালে বিনা পয়সায় চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা করেছি। উদ্বোধনের আগেই ১০ লাখ টাকার ঔষুধ এখানে নিয়ে এসেছি। প্রতিমাসে এখানে একজন প্রফেসর নিয়ে আসবো। যিনি এলাকার মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিবেন। এই নড়িয়া ও সখিপুরে আরো কয়েকটি হাসপাতাল গড়ে তুলবো।
তিনি বলেন, আমি মন্ত্রী এটা টেম্পরারী। আমি আওয়ামী লীগের একজন কর্মী, শেখ হাসিনার একজন কর্মী। আওয়ামী লীগের একজন কর্মী হিসেবে সততার সাথে নিষ্ঠার সাথে আমি মৃত্যুবরণ করতে চাই। প্রধানমন্ত্রী যে বিশ্বাস এবং আস্থা রেখে আমাকে মন্ত্রী সভার সদস্য করেছে আমি জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও প্রধানমন্ত্রীর সেই  বিশ্বাস এবং আস্থার মূল্য দিবো।
এনামুল হক শামীম বলেন, নির্বাচনের আগে আমি যে ওয়াদা করেছিলাম এমপি হিসেবে শপথ নেয়ার পর থেকেই সেই ওয়াদা বাস্তবায়ন শুরু করেছি। এ মাসেই নড়িয়া ও সখিপুরের ২৪টি ইউনিয়নে ৪৮টি ব্রীজ এবং ৪৮টি রাস্তার জন্য ৭০ কোটি টাকার

টেন্ডার হবে, যেটা এ অঞ্চলে ১০ বছরেও হয় নাই।
জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহেরের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ ইকবাল আর্সেলান, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের পরিচালক ও লাইন ডাইরেক্টর ডাঃ মো. শরীফ, শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, গোপালগঞ্জ বিভাগ স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইসহাক মিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে প্রমূখ।
এ সময় নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী হাচান আলী রাড়ী, সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির মোল্যা, বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানবৃন্দ, স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও এলাকার জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন।
বেগম আশ্রাফুননেছা হাসেম ১০ শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যান কেন্দ্রটি চার কোটি ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে তৈরি করা হয়। কেন্দ্রটি ২০১৭ সালে কাজ শুরু হয়ে শেষ হয় ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে।


error: Content is protected !!