বৃহস্পতিবার, ৯ই এপ্রিল, ২০২০ ইং, ২৬শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
আজ বৃহস্পতিবার | ৯ই এপ্রিল, ২০২০ ইং

শরীয়তপুর নারী চোরের উপদ্রব বেড়ে গেছে

শনিবার, ১৪ মার্চ ২০২০ | ৩:৩৮ অপরাহ্ণ | 190Views

শরীয়তপুর নারী চোরের উপদ্রব বেড়ে গেছে

শরীয়তপুর নারী চোরের উপদ্রব বেড়ে গেছে। ৭ মার্চ ২০২০ শনিবার শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে সংঘবদ্ধ চোরচক্রের দুই মহিলা সদস্য আটক। এই সংঘবদ্ধ চোরচক্রের সদস্যরা বহুদিন যাবত শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের মোবাইল ও টাকা চুরি করে আসছিল।
তাদের মায়া করে ছেড়ে দেয়া হলেও তার ৫ দিন পর ১২ মার্চ জেলার নড়িয়ায় একাধিক চুরি মামলার আসামী কুখ্যাত দুইজন মহিলা চোরকে হাতেনাতে আটক করা হয়।
নড়িয়া থানা সূত্রে ও স্থানীয় ভাবে জানা যায়, ঘড়িসার বাজার এলাকায় ইভা আক্তার নামে একজন মহিলা ক্রেতা দোকান থেকে থ্রি পিস কেনেন। তিনি দোকানদারকে থ্রি পিস এর দাম বাবদ ৬০০ টাকা দিলে দোকানদার তাকে ৭৩ টাকা ফেরত দেন। তিনি উক্ত টাকা তার ভ্যানিটি ব্যাগে রাখলে তার পাশে থাকা কুখ্যাত মহিলা চোর, স্বামী-, গ্রাম- জাজিরা উপজেলার সাগর কান্দি গ্রামের মোঃ খলিলুর রহমান সরদারের স্ত্রী লাকি আক্তার (৩১) ও পালং থানার বালুচড়া পাকারমাথা এলাকার আবুল সরদারের মেয়ে মৌ আক্তার (২৯) সুকৌশলে ইভা আক্তারের ভেনেটি ব্যাগে থাকা ৮ হাজার টাকা চুরি করে পালানোর চেষ্টাকালে ইভা বিষয়টি টের পেলে চোর দু’জন দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। তখন স্থানীয় জনগণ মহিলা চোর দুই জনকে হাতেনাতে ধরে ফেলে। উল্লেখিত বিষয়ে ১২ মার্চ আটককৃত চোরদের বিরুদ্ধে নড়িয়া থানার মামলা নম্বর- ০৬, ধারা- ৩৭৯ পেনাল কোড রুজু করা হয়। তাদেরকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
মহিলা চোরেরা চুরি করার কৌশল হিসাবে চুরি করার সময় সাথে দুই-তিনজন ছোট বাচ্চা (দুধের বাচ্চা) সাথে রাখে। টাকা চুরি করার পর মহিলা চোরেরা তাদের সাথে থাকা ৭/৮ বছরের শিশু বাচ্চা দিয়ে চুরি করা টাকা সঙ্গে সঙ্গে তাদের সহযোগী অন্যান্য চোরদের কাছে পাচার করে দেয়।
আটককৃত দুই মহিলা চোর চুরি করার কৌশল হিসাবে চুরি করার সময় সাথে দুই-তিনজন ছোট বাচ্চা (দুধের বাচ্চা) সাথে রাখে। টাকা চুরি করার পর মহিলা চোরেরা তাদের সাথে থাকা ৭/৮ বছরের শিশু বাচ্চা দিয়ে চুরি করা টাকা সঙ্গে সঙ্গে তাদের সহযোগী অন্যান্য চোরদের কাছে পাচার করে দেয়। আটককৃত মহিলা চোরদের বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে নড়িয়া থানার মামলা নং- ১৭, তারিখ- ১৪.১২.২০১৮ ইং, ধারা- ৩৮০/৪১১ পেনাল কোড এবং নড়িয়া থানার মামলা নং- ০১ তারিখ- ০১.০৬.২০১৯ ইং, ধারা- ৩৮০/৪১১ পেনাল কোড বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে। শরীয়তপুর বাসীকে এই দুইজন মহিলা চোরদের ব্যাপারে সাবধান থাকার জন্য অনুরোধ করা হলো।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, রোগীরা চিকিৎসা নিতে আসে তাদের ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে সুকৌশলে টাকা ও মোবাইল চুরি করে নিয়ে যায়। আরও জানা গেছে এই সংঘবদ্ধ চোরচক্রের সদস্যরা বহুদিন যাবত শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের মোবাইল, টাকা চুরি করে আসছিল।
অন্য জেলা থেকে শরীয়তপুরে এসে মহিলা চুরি পেশায় নেমেছে। এর ভেতর দুই চোর সদস্যের নাম পরিচয় জানা যায়, দুইজনের বাড়ি জামালপুর জেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের হারগিলা গ্রামে। একজন আব্দুর রবের স্ত্রী রজনী আক্তার (২৫) এবং অপরজন মো. রাসেলের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (১৮)। তারা বর্তমানে শরীয়তপুর পালং থানার আংগারিয়া বড় ব্রিজের পশ্চিম পাশে বাইদ্যা বস্তিতে বসবাস করে। চোরদের ধরিয়ে দেওয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃক পালং থানায় বিষয়টি অবগত করা হয়।
শরীয়তপুরের সচেতন মহল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন।


-Advertisement-
সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  

ফেইসবুক পাতা

-Advertisement-
-Advertisement-
error: Content is protected !!