শনিবার, ৮ই আগস্ট, ২০২০ ইং, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী
শনিবার, ৮ই আগস্ট, ২০২০ ইং

শরীয়তপুরে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ০১ জনের মৃত্যু, সুস্থ ১৯ জন

শরীয়তপুরে গত ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ০১ জনের মৃত্যু, সুস্থ ১৯ জন

গত ২৪ ঘন্টায় শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা মোট ৭ জন। শরীয়তপুরে নভেল করোনা ভাইরাস শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৯৫৪ জন। আর এ পর্যন্ত স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ ৭৪৪ জনকে সুস্থ ঘোষণা করেছে। বর্তমানে জেলায় সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২০৩ জন।

বুধবার (২২ জুলাই) জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সিভিল সার্জন অফিসের রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা মেডিকেল অফিসার ডা. সৈয়দা শাহিনুর নাজিয়া জানান, নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। করোনা ভাইরাস শুরু থেকে শরীয়তপুরে এই পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৯৫৪ জন এবং নতুন ১৯ জন সহ এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৭৪৪ জন। গত ২৪ ঘন্টায় ঢাকা থেকে নমুনা পরীক্ষার কোন ফলাফল আমাদের কাছে আসেনি। ২২ জুলাই পর্যন্ত জেলায় মোট সন্দেহভাজন নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ৬ হাজার ২৫০ টি এবং ফলাফল হাতে এসেছে মোট ৬ হাজার ১৩৮ জনের।

শরীয়তপুর সদর উপজেলায় এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছে ৩৪০ জন, যার মধ্যে নতুন ১২ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছেন ২৫৭ জন। জাজিরা উপজেলায় মোট আক্রান্ত ১২৮ জন, যার মধ্যে ০২ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছে ৮৮ জন। নড়িয়া উপজেলায় মোট আক্রান্ত ১৪৩ জন, যার মধ্যে নতুন ০৩ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছে ১২১ জন। ভেদরগঞ্জে মোট আক্রান্ত ১২৪ জন, যার মধ্যে মোট সুস্থ হয়েছে ১০২ জন। এছাড়া ডামুড্যা উপজেলায় মোট ৮৫ জন আক্রান্তের মধ্যে মোট ৭০ জন সুস্থ হয়েছেন ও গোসাইরহাট উপজেলায় মোট ১৩৪ জন আক্রান্তের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন নতুন ০২ জনসহ মোট ১০৬ জন। এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে জেলার নড়িয়া উপজেলায় ০৩ জন, জাজিরায় ০১ জন, ভেদরগঞ্জে ০২ জন ও ডামুড্যায় ০১ জনসহ মোট ০৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

জেলায় কোনো করোনা পরীক্ষার ল্যাব নেই। নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে প্রেরণ করে স্বাস্থ্য বিভাগ। যার কারণে পরীক্ষার ফলাফল পেতে বিলম্ব হওয়ায় রোগীদের বিপাকে পড়তে হচ্ছে।

এদিকে মরণঘাতী এ ভাইরাস সম্পর্কে জানলেও বেশিরভাগ মানুষ স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলায় জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে।