শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং, ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী
শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

শরীয়তপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধাকে চোর অপবাদে হামলা

শরীয়তপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধাকে চোর অপবাদে হামলা

শরীয়তপুর জেলার সদর উপজেলার চিতলিয়া ইউনিয়নের মিরা কান্দি গ্রামের (৭৭) উর্ধ্বো এক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আলেম বেপারীর উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। একই গ্রামের পাশর্^বর্তী মোফেজ ঢালীর ছেলে সন্ত্রাসী জুয়েল ঢালী তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বীর মুক্তিযোদ্ধ আবু আলেম বেপারীর উপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় আবু আলেম বেপারী মাটিতে লুটিয়ে পরে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করেন। এদিকে মুক্তিযোদ্ধা আবু আলেম বেপারী জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড সহ- মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে পালং মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলেও আসামী জুয়েল ঢালী এখনো ধরা ছোয়ার বাইরে।

আহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আলেম বেপারী জানান, গত কয়েকদিন ধরে এলাকার মানুষদের কাছে জুয়েল ঢালী মুক্তিযোদ্ধা আবু আলেম ঢালী কে মাছ চোর বলে বেরাচ্ছে। তা নিয়ে বুধবার সকালে মাছের বিষয়ে কথা কাটাকাটি করে জুয়েল। এবং জুয়েল প্রকাশ্যে আমাকে চোর অপবাদ দেয়, এই কথা আমি জুয়েলদের বাড়ি জিজ্ঞাসা করতে গেছি, জে তুমি এই কথা পাইলা কই যে আমি মাছ চুরি করে বিক্রি করছি। এই কথা বলার সাথে সাথে আমার ঘাড় মটকাইয়া সিমেন্ট এর সিড়ির উপর ফালাইয়া লোহার রড ও গাছের ডাল দিয়ে এলোপাথারী পিটাতে থাকে, এর পর আমি অজ্ঞান হয়ে পরে থাকি। পরে মহিলারা আমাকে উদ্ধার করে। পরে গুরুতর অবস্থায় আমি শীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেই। পুলিশ প্রশাসনের নিকট আমি জুয়েল এর কঠিন শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

পালং মডেল থানার ওসি আসলাম উদ্দিন জানান, আমার কাছে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু আলেম ঢালী অভিযোগ করেন, আমার পুলিশ তদন্তে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে। আমার পুলিশ হামলাকারীকে ধরতে কাজ করছে। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধা শাহআলমের স্ত্রী আকলিমা বেগম বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে, হামলাকারী জুয়েল ঢালীর বাসায় গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি, তার সাথে মুঠো ফনে যোগাযোগ করতে চাইলেও কেউ নাম্বার দিতে রাজি হয়নি।