সোমবার, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী
সোমবার, ১৪ই জুন, ২০২১ ইং

ফিলিস্তিনে নৃশংস হত্যার প্রতিবাদে পাবলিকিয়ান শরীয়তপুরের মানবন্ধন

ফিলিস্তিনে নৃশংস হত্যার প্রতিবাদে পাবলিকিয়ান শরীয়তপুরের মানবন্ধন

শরীয়তপুরের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সংগঠন “পাবলিকিয়ান শরীয়তপুর” এর ঈদ পূর্নমিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ মে) বেলা ১১ টায় ভোজন বাড়ি রেস্টুরেন্ট এ আনন্দময় পরিবেশে ঈদ পূর্নমিলনী আয়োজন দিনব্যাপী বিভিন্ন পর্বে অনুষ্ঠিত হয়। ঈদ পূর্নমিলনীতে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে।

প্রথম পর্বে নিজ নিজ পরিচয় প্রদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। পরে আলোচনা সভা, দুপুরের খাবার, ফিলিস্তিনের পক্ষে মানববন্ধন, কুইজ, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ ও পুরষ্কার বিতরণীর মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী প্রোগ্রামের ইতি টানা হয়।

শফিকুল ইসলাম শাওনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তারা শরীয়তপুরের শিক্ষার মান উন্নয়নে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন। শরীয়তপুরকে কিভাবে অদুর ভবিষ্যতে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়। আগামীর প্রজন্মকে শরীয়তপুরকে ধারণ করার আহ্বান জানান।

ঈদ পূর্নমিলনীতে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শরীয়তপুরের শিক্ষার্থীদের সংগঠন কীর্তিনাশার সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র কল্যান সমিতির সভাপতি কামরুল হাসান, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি ইবনে মনির, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র কল্যান সমিতির সভাপতি সুজন মিয়া, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক সুমন মিয়া।

আয়োজকদের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মাহফুজ ঢালি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আব্দুর রহমান, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পল্লব আহমেদ সিয়াম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শরীফ মাহমুদ প্রমুখ।

পরে পাবলিকিয়ান শরীয়তপুরের পক্ষ থেকে ইসরায়েলের নৃশংস হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে ফিলিস্তিনের পক্ষে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বক্তারা ইসরায়েলের নৃশংস হামলার কঠোর সমালোচনা করেন। অবিলম্বে এ হামলা বন্ধ করার আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্য এ প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। প্রীতি ফুটবল ম্যাচে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ৩-১ গোলে জয় লাভ করে। ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয় মাহবুব আলম। প্রীতি ম্যাচটি পরিচালনা করেন সুজন, সিয়াম ও আখতার। বিজয়ী দলকে পুরষ্কার বিতরণীর মধ্যে দিয়ে দিনব্যাপী স্বতঃস্ফূর্ত প্রোগ্রামের ইতি টানা হয়।