বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

সমাজ সেবা কর্মকর্তার ওপর হামলার ঘটনায় শরীয়তপুরে প্রতিবাদ

সমাজ সেবা কর্মকর্তার ওপর হামলার ঘটনায় শরীয়তপুরে প্রতিবাদ

পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মো. আখলাকুর রহমানের উপর সন্ত্রাসী হামলার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে শরীয়তপুর জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন করা হয়। পরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। এ সময় শরীয়তপুর জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. কামাল হোসেন, সহকারী পরিচালক ফয়জুল বারি, নড়িয়া সমাজসেবা অফিসার সাব্বির হোসেন, সদর সমাজসেবা অফিসার তরিকুল ইসলাম, জাজিরা উপজেলা সমাজসেবা অফিসার আসাদুল্লাহ্, জেলা সমাজসেবা প্রশাসনিক কর্মকর্তা মওলাদাত খান, শহর সমাজসেবা কর্মকর্তা তানজির তারেক ইবনে সিদ্দিক, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উচ্চমান সহকারী পিযুষ কুমার দত্তসহ সমাজসেবা কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধন ও স্মারকলিপি থেকে জানা যায়, পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার বড়হারজী গ্রামের কাঞ্চচ আলী হাওলাদারের পুত্র আ. গফ্ফার খোকন ওই গ্রামে হাজী গুলশান আরা শিশু সদন নামে ২০২ জন এতিম দেখিয়ে ১০১ জনের এতিমের নামে প্রতি বছর ১২ লাখ টাকা সরকারি বরাদ্দ তুলে আত্মসাৎ করে আসছিল। সম্প্রতি ওই এতিমখানার বিরুদ্ধে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ মাহামুদ ভুয়া এতিম দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। ইউএনও’র পক্ষে সহকারী কমিশনার ভূমি মো. সোহাগ হাওলাদার সম্প্রতি সরেজমিন পরিদর্শন ও তদন্ত করে ওই এতিমখানায় মাত্র ৪১ এতিম উপস্থিত পায়। এ বিষয়ে ভুয়া এতিমের নামে বর্ধিত বরাদ্দ বাতিলের সুপারিশ করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের বরাবরে প্রতিবেদন দাখিল করে। গত ছয় মাসের সরকারি অনুদানের ছয় লাখ টাকা বিল চেয়ে গত রোববার বিকালে ওই এতিমখানার সভাপতি গফ্ফার সমাজ সেবা কর্মকর্তার উপর চাপ প্রয়োগ করে। সমাজ সেবা অফিসার মো. আখলাকুর রহমান ওই বিল দিতে অস্বীকার করে। এসময় সভাপতি গফ্ফার ও মোস্তফা মাহমুদ তার ৫-৬ জন ভাড়া করা সন্ত্রাসী উপজেলা সমাজসেবা অফিসে ঢুকে চাপাতি ও হাতুড়ি দিয়ে এলোপাথারিভাবে পিটিয়ে সমাজ সেবা অফিসারকে গুরতর আহত করে। তারা অফিস, কম্পিউটারসহ আসবাবপত্র ব্যাপক ভাংচুর করে। তাই সমাজ সেবা অফিসার মো. আখলাকুর রহমানের ওপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা জানান এবং সরকারের নিকট সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান শরীয়তপুর জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।


error: Content is protected !!