বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

গ্রেনেড হামলার মাস্টারমাইন্ড খালেদা ও তারেক: শামীম

গ্রেনেড হামলার মাস্টারমাইন্ড খালেদা ও তারেক: শামীম

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেছেন, ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার মাস্টারমাইন্ড খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমান। এ ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই।  

তিনি বলেন, ‘আদালতের রায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি তারেক রহমানসহ পলাতকদের অচিরেই দেশে এনে বিচারের রায় কার্যকর করতে হবে এবং এদের দল বিএনপির বিচার করতে হবে। এই খুনি ও সাম্প্রদায়িক দল বিএনপিকে কানাডার আদালত সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে রায় দিয়েছিল

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে আজ শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা ও সখিপুর থানায় আওয়ামী লীগের আলোচনাসভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে  তিনি এসব কথা বলেন।

গ্রেনেড হামলায় স্প্লিন্টার বয়ে বেড়ানো এনামুল হক শামীম বলেন, একাত্তরের লাখো শহীদের রক্তে যে মাটি ভিজেছিল, যে মাটি বঙ্গবন্ধুর রক্তে ভিজেছিল পঁচাত্তরে, সেই মাটিতে আবারও রক্ত ঝরে, যা ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বিশ্ব অবাক বিস্ময়ে দেখেছে। সেদিন তাদের টার্গেট ছিল বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। পঁচাত্তরের বুলেট ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট ফিরে আসে প্রাণঘাতী গ্রেনেড হয়ে। নেতাকর্মীরা প্রাণপণ করে নেত্রীর সুরক্ষায় গড়ে তোলে মানবঢাল। আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে আবারও বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। নিজেও গ্রেনেড হামলায় গুরুতর আহত হয়ে দীর্ঘদিন ঢাকায় ও ভারতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। আজও শরীরে স্প্লিন্টার বয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি।

তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত দেশবিরোধী মহাপরিকল্পনা করে বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করতে চেয়েছিল। ৭৫-এ জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মাস্টারমাইন্ড। আর ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার হত্যা পরিকল্পনার মাস্টারমাইন্ড খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমান। গ্রেনেড হামলার পর তারা মামলা পর্যন্ত করতে দেয়নি। তারা জজ মিয়া নাটক সাজিয়েছিল। তবে তারা সফল হয়নি, সফল হবেও না।  

এ সময় বক্তব্য দেন নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল হক মাল, পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, ভেদরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ হুমায়ুন কবির মোল্যা ও সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার।


error: Content is protected !!