Tuesday 25th June 2024
Tuesday 25th June 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে শরীয়তপুরের স্বর্ণঘোষে প্রস্তুতি সভা

জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে শরীয়তপুরের স্বর্ণঘোষে প্রস্তুতি সভা

শরীয়তপুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড স্বর্ণঘোষ দিঘিরপাড় এলাকায় মহান স্বাধীনতার স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৩ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভপতি ইসাহাক তালুকদারের সভাপতিত্বে শুক্রবারের প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক মেয়র আব্দুর রব মুন্সী।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, শরীয়তপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ বাচ্চু বেপারী, জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক নুহুন মাদবর, জেলা পরিষদ সদস্য উজ্জল আকন, জেলা ছাত্রলীগ যুগ্ম আহবায়ক রাশেদুজ্জামান রাশেদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সহ-সভাপতি জাকির হোসেন ডাবলু তালুকদার, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ সম্পাদক মানিক ব্যানার্জী, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ফরিদ শেখ, আওয়ামীলীগ নেতা বাচ্চু মুন্সী, সদর উপজেলা যুবলীগ সহ-সভাপতি হোসেন সরদার, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা, মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন খান, গিয়াস উদ্দিন বয়াতী, আয়নাল হক বেপারী, রমিজ উদ্দিন শরীফ, তারা মিয়া সিকদার, ফজলু খান, আ. আজিজ মুন্সী, ফজলু নক্তী, রুহুল আমিন খান, শাহজাহান হাওলাদার, হাবিবুর রহমান বেপারী, হান্নান সিকদার, শাহাদাত তালুকদার, শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল হক এর ছোটভাই মোজাম্মেল হক হাওলাদার প্রমূখ।
প্রস্তুতি সভার আয়োজন করেন, ইলিয়াস মকদম, কায়সার আহমেদ সুমন শরীফ, খবির উদ্দিন শেখ, বিএম ইয়াকুব, জাকির হোসেন বেপারী, মনির হোসেন মুন্সী, জলিল বেপারী, রফিক মাঝি সহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতকর্মীগণ।
আলোচনা সভায় স্থানীয় নেতা-কর্মীগণ তাদের বক্তব্যে বলেন, স্থানীয় রাজনীতিতে আজ আমরা একজন মুরব্বীকে বাদ দিয়ে জাতীর জনকের শাহাদাত বার্ষিকীর প্রস্তুতি সভায় উপস্থিত হয়েছি। তা আমাদের জন্য কলঙ্কের অধ্যায়। আমাদের এমন সময়ের সম্মুখিন হতে হবে তা আমরা কল্পনাও করিনি। আজ পরিস্থিতির স্বীকার হয়ে তাকে বাদ দিতে বাধ্য হয়েছি। আমরা আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে অতোপ্রত ভাবে জড়িত। তার কারনেই আজ আমরা দ্বিধা-বিভক্তিতে বিভক্ত হয়েছি। আওয়ামীলীগের নৈতিকতাকে বাদ দিয়ে কিছু দুস্কৃতিকারি লোকদের নিয়ে তিনি রাজনীতির অঙ্গন দখল করতে চেষ্টা করে। স্বার্থ আদায়ের জন্য আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের উপর জুলুম ও অত্যাচার শুরু করে। দরবার শালিসীতে গেলে তার ডানহাত ও বডিগার্ড এবং বামহাত ও অর্থনৈতিক উপদেষ্টার নামে উভয় পক্ষ থেকে টাকা আদায় করে। নেতাকর্মীদের উপর জুলুম ও অত্যাচার চালায়। তাই ওই মুরব্বিকে বাদ দিয়েই স্বর্ণঘোষ এলাকায় জাতীর জনকের শাহাদাত বার্ষিকী পালন হবে।
প্রস্তুতি সভার প্রধান বক্তা আব্দুর রব মুন্সী বলেন, স্বর্ণঘোষ এলাকাবাসীকে এক সাথে দেখে আমার খুব ভালো লাগল। বিগত দিনে কথিত আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সামাদ মাষ্টার এলাকার নেতাকর্মীদের মাঝে বিভক্তি করে রাখত। এলাকার উন্নয়নে বাঁধা হয়ে দাড়াইত। আমি মেয়র থাকাবস্থায় স্বার্ণঘোষ এলাকায় একটা সাপ্লাই পানির পাম্প স্থাপনের জন্য সিদ্ধান্ত নেই। তখন তিনি একজন অশিক্ষিত ও অযোগ্য লোককে চাকুরী দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে আমাদের কাছে চাঁদা দাবী করে। তার অবৈধ চাহিদা পূরন করতে না পেরে সেই পানির পাম্প অন্যত্র স্থাপন করেছি। এ সকল মানুষ এলাকার উন্নয়নের জন্য বাঁধা।