Thursday 25th July 2024
Thursday 25th July 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

শরীয়তপুরের জনসংখ্যা ১২.৯৪ লাখ, নারী-পুরুষ অনুপাত ৪৮:৫২, সাক্ষরতা ৭২.৯%

শরীয়তপুরের জনসংখ্যা ১২.৯৪ লাখ, নারী-পুরুষ অনুপাত ৪৮:৫২, সাক্ষরতা ৭২.৯%

পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) কর্তৃক বাস্তবায়িত প্রথম ডিজিটাল জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২ এর শরীয়তপুর জেলা রিপোর্ট প্রকাশনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২৭ জুন বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে প্রকাশনা অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। জেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়ের আয়োজনে, প্রকাশনা অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), মো: সাইফুদ্দিন গিয়াস।
প্রাপ্ত ফলাফলে জানা যায়, শরীয়তপুর জেলার মোট জনসংখ্যা ১২ লাখ ৯৪ হাজার ৫৬২ জন। এর মধ্যে পল্লিতে ৯ লাখ ৮৫ হাজার ১৬১ জন এবং শহরে ৩ লাখ ৯ হাজার ৪০১ জন লোক বসবাস করেন। এর মধ্যে শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার জনসংখ্যা সর্বাধিক ২ লাখ ৭৮ হাজার ৩০৬ জন এবং ডামুড্যা উপজেলার জনসংখ্যা সর্বোনিম্ন ১ লাখ ২৩ হাজার ৬৩৯ জন। অন্যান্য উপজেলার জনসংখ্যা, গোসাইরহাট ১ লাখ ৭৫ হাজার ১৬ জন, নড়িয়া ২ লাখ ৬০ হাজার ২৪০ জন, সদর ২ লাখ ৩৯ হাজার ৫৯০ জন, জাজিরা ২ লাখ ১৭ হাজার ৭৭১ জন।
প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, শরীয়তপুর জেলায় নারী ৬ লাখ ৭৩ হাজার ৫ জন, পুরুষ ৬ লাখ ২১ হাজার ৫০৬ জন, প্রতি ১০০ জনে ৪৮.০১ জন নারী এবং ৫১.৯৯ পুরুষ জনবসতি রয়েছে। প্রতিবেদন বলছে, জনসংখ্যা বৃদ্ধি সাথে সাথে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারও বৃদ্ধি পেয়েছে। সর্বশেষ ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী এই হার ছিল ০.৬৫ শতাংশ। ২০২২ সালের শুমারিতে যা বৃদ্ধি পেয়ে ১.০১ শতাংশে এসে পৌছিয়েছে।
জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারের সাথে বেড়েছে জনসংখ্যার ঘনত্বও। ২০২২ সালের জনশুমারি অনুযায়ী শরীয়তপুর জেলার জনবসতি প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১১০৩ জন যা ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুয়ায়ী ছিল ৯৮৪ জন। জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২ অনুযায়ী, শরীয়তপুর জেলার মোট জনসংখ্যার ৯৬.৬৮ শতাংশ মুসলিম, ৩.৩০ শতাংশ হিন্দু, ০.০১ শতাংশ খ্রিস্টান, ০.০২ শতাংশ বৌদ্ধ, ০.০০ শতাংশ অন্যান্য ধর্মাবলম্বী এবং ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী রয়েছে ৪৩৮ জন।
প্রতিবেদন বলছে, শরীয়তপুর জেলায় অবিবাহিত জনসংখ্যার ২২.৮১ শতাংশ নারী, ৩০.১০ শতাংশ পুরুষ এবং বিবাহিত জনসংখ্যার ৬৬.৬৫ শতাংশ নারী, ৬৩.৭১ শতাংশ পুরুষ। অবিবাহিত হিসেব করা হয়েছে ১০ বছর ও তদূর্ধ্ব বয়সী জনসংখ্যার মানুষকে ধার্য করে।
শুমারির ফলাফল অনুযায়ী, শরীয়তপুর জেলার মোট সাক্ষরতার হার ৭২.৯০ শতাংশ, নারীদের মধ্যে সাক্ষরতার হার ৭১.৭৩ এবং পুরুষদের মধ্যে সাক্ষরতার হার ৭৪.২০ শতাংশ। প্রাপ্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৫ বছর ও তদূর্ধ্ব বয়সীদের মধ্যে মোট ৭১.৬২ শতাংশ মানুষের নিজ ব্যবহারের মোবাইল ফোন রয়েছে এবং ১৫ বছর ও তদূর্ধ্ব বয়সীদের মধ্যে মোট ৪০.০২ শতাংশ মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। এছাড়া, শরীয়তপুর জেলার সর্বমোট বাসগৃহের সংখ্যা ৩ লাখ ৪২ হাজার ৮৪০ টি।
প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ নিজাম উদ্দীন আহাম্মেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পুলিশ সুপার মাহবুবুল আলম অনুপস্থিতিতে উপস্থিত ছিলেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ), তানভীর হায়দার শাওন, সিভিল সার্জন আবুল হাদি মোহাম্মদ শাহ পরান, জেলা পরিষদ প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ রাশেদউজ্জামান, জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, শরীয়তপুর পৌরসভা মেয়র মো: পারভেজ রহমান জন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য ও জেলা রিপোর্টের উপর বিস্তারিত প্রেজেন্টেশন প্রদান করেন, জেলা পরিসংখ্যান কার্যালয়, উপপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) সৈয়দ ফয়সাল।
আরোও উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ, সহকারী কমিশনারগণ জেলার বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের অফিস প্রধানগণ, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ উক্ত প্রকাশনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন