Wednesday 17th April 2024
Wednesday 17th April 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

শরীয়তপুরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন

শরীয়তপুরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন

স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস-২০১৮ পালন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে শরীয়তপুর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের আয়োজনে শরীয়তপুর সদর উপজেলার সভা কক্ষে এ আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, শরীয়তপুরের সুযোগ্য জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, আজকের এই দিনে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীরভাবে স্বরণ করছি। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তান হিসেবে বিশ্ববাসির কাছে স্বীকৃতি লাভ করেছে। যার নের্তৃত্বে বাঙ্গালী জাতি মাথা উচু করে গর্বিত জাতি হিসেবে বিশ্বের কাছে স্বীকৃতি লাভ করেছে। বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক সাতই মার্চের ভাষণকে ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনেসকো।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শরীয়তপুর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের আহবায়ক ও সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল জলিল হাওলাদার। সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার যুদ্ধে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে আমরা বাংলা মায়ের দামাল সন্তানরা জীবন বাজী রেখে পাক বাহিনীদের বিরুদ্ধে সরাসরি অস্ত্র নিয়ে যুদ্ধ করে ৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর আমরা বিজয় সিনিয়ে এনেছি। এ সময় শ্রদ্ধাবনত চিত্তে আমরা বঙ্গবন্ধুকে স্বরণ করতে চাই। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগষ্ট বঙ্গবন্ধুসহ তার স্বপরিবারকে ঘাতকরা হত্যা করে। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারে যারা শহীদ হয়েছেন তাদের সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। তিনি বলেন, শোককে শক্তি হিসেবে পুরণ করে জাতির জনকের স্বপ্ন পূরনে সকল ভেদাভেদ ভূলে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও আগামী নির্বাচনে জয়লাভ করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আল মামুন সিকদার, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসেম তপাদার, শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র মো. রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল, শরীয়তপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব রাজ্জাক, ভেদরগঞ্জ উপজেলা যুদ্ধকালীন কমান্ডার আব্দুল মান্নান রাড়ী।
এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুর রাজ্জাক, আমীর হোসেন খান, শওকত আলী খান, হযরত আলী তস্কার, আবুল হোসেন খান, জাহাঙ্গীর হোসেন খান, আলীম উদ্দিন শেখ, মীর্জা ইউনুস আলী, আব্দুল মজিদ মাদবর, আনোয়ার হোসেন মুন্সী, মাষ্টার আব্দুর রহমান, আল মামুন, মাষ্টার আব্দুর রশিদ, আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা সভা শেষে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়ার আয়োজন করা হয়। পরে সকলের উপস্থিতিতে উন্নত মানের তবারক বিতরণ করা হয়।