বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ ইং, ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৩ই মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ ইং

শরীয়তপুরে স্বাস্থ্য সচেতনতা, পুষ্টি ও খাদ্য বিষয়ক আলোচনা সভা

শরীয়তপুরে স্বাস্থ্য সচেতনতা, পুষ্টি ও খাদ্য বিষয়ক আলোচনা সভা

জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ উপলক্ষ্যে শরীয়তপুরে স্বাস্থ্য সচেতনতা, পুষ্টি ও খাদ্য বিষয়ক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহের কর্মসুচির অংশ হিসেবে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে বুধবার (১৭ এপ্রিল) বেলা ১১টায় জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিভিল সার্জন ডা. খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল মামুন শিকদার, সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আব্দুল্লাহ, সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. কামাল হোসেন ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উপপরিচালক ডা. জাকির হোসেন।
সভাপতির বক্তব্যে সিভিল সার্জন ডা. খলিলুর রহমান বলেন, অভ্যাস ও আচরণের মাধ্যমে আমরা শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারি। স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের জন্য সকল নাগরিকের স্বাস্থ্য সচেতনতা দরকার। স্বাস্থ্য সচেতনতার বিভিন্ন দিক রয়েছে। যেমন দৈনন্দিন কাজ কর্মে স্বাস্থ্য সচেতনতা, খাদ্যাভাসে স্বাস্থ্য সচেতনতা, অসুখ নিয়ে স্বাস্থ্য সচেতনতা ও আচার আচরনে স্বাস্থ্য সচেতনতা। দৈনন্দিন কাজ কর্মে স্বাস্থ্য সচেতনতায় থাকবে বিশুদ্ধ পানি পান করা, শৌচের পরে ও খাওয়ার আগে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া। স্বাস্থ্যবিধিসম্মত শৌচাগার ব্যবহার করা। খাদ্যাভাসে স্বাস্থ্য সচেতনতা যেমন, ক্ষতিকর খাদ্য ও পানীয় ব্যবহার না করা। মাদক সেবন থেকে দুরে থাকা। ভেজাল খাদ্য নিয়ে সচেতন থাকা। অসুখ বিসুখে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া, অপ্রয়োজনীয় ও ক্ষতিকর ওষুধ ব্যবহার থেকে বিরত থাকা। আচার আচরনেও স্বাস্থ্য সচেতনতা হতে হবে। যেমন যত্র তত্র ময়লা আবর্জনা না ফেলা। এ ভাবে সকল নাগরিক স্বাস্থ্য সচেতন হলে আমাদের অসুখ বিসুখ কমে যাবে। আমরা স্বাভাবিক সুস্থ্য জীবন যাপন করতে পারবো।
এ সময় স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
“স্বাস্থ্য সেবা অধিকার শেখ হাসিনার অঙ্গিকার” এই শ্লোগানে ১৬ থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত ৫দিন ব্যাপী জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ পালিত হবে। জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ পালন উপলক্ষে শরীয়তপুর স্বাস্থ্য বিভাগ বর্ণাঢ্য কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান, বর্তমান সরকারের স্বাস্থ্য সেক্টরে অগ্রগতি বিষয়ে প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দ্বারা হাসপাতালের বর্হিবিভাগে বিশেষ চিকিৎসা সেবা প্রদান, বর্ণাঢ্য র‌্যালী, স্বাস্থ্য সচেতনা, পুষ্টি, ও খাদ্য বিষয়ক আলোচনা সভা, সেবা গ্রহিতাদের সাথে মতবিনিময় ও কমিউনিটি ক্লিনিকের অবদান শীর্ষক আলোচনা সভা, স্কুল হেল্থ প্রোগ্রাম পরিদর্শন, চিকিৎসা সেবায় নৈতিকতা বিষয়ক আলোচনা সভা, অটিজম ও বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের বিশেষায়িত চিকিৎসা সেবা প্রদান, অটিজম ও মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক আলোচনা ও সমাপনী অনুষ্ঠান।


error: Content is protected !!