শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং, ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৭ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং

শরীয়তপুরে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব

শরীয়তপুরে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব

শরীয়তপুরে বিতর্ক মানেই যুক্তি বিজ্ঞান এই মুক্তি বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব-২০১৯ উদ্যাপিত হয়েছে। শরীয়তপুর সদরে অবস্থিত পালং উচ্চ বিদ্যালয় এর সম্মেলন কক্ষে ১৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার এ বিজ্ঞান বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শরীয়তপুর সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান হাওলাদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর সরকারী কলেজের উদ্ভি বিজ্ঞান বিভাগের সসহকারী অধ্যাপক এমরান সরদার, পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: আব্দুল হালিম শেখ।
সমকাল সুহৃদ সমাবেশের আহবায়ক ও শরীয়তপুর সরকারি কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আব্দুস সোবাহান বাবুল অনুষ্ঠানের সভাপতি ও মোডারেটের দায়িত্বে ছিলেন।
অনুষ্ঠানে বিচারকের দায়িত্বে শরীয়তপুর সরকারি কলেজের দর্শন বিভাগের প্রভাষক মোঃ শাহিন সরকার ও শরীয়তপুর সরকারি কলেজের কেমিস্ট্রি বিভাগের প্রভাষক মো: মোজাম্মেল হোসেন।

উপস্থাপকের দায়িত্বে ছিলেন খাদিজা আক্তার লিপি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন দৈনিক সমকাল পত্রিকার শরীয়তপুর জেলা প্রতিনিধি ও সহৃদ সমাবেশের উপদেষ্টা শহীদুল ইসলাম পাইলট। সকাল ৯ টায় কোরআন তেলাওয়াত ও গীতা পাঠের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। এরপর শুরু হয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতায় আট টি স্কুলের মধ্যে উপস্থিত ছিল পালং উচ্চ বিদ্যালয়, আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, বিঝারী উপসী তারাপ্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয়, বি এম ইউসুফ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, চিকন্দী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, শোলপাড়া মনোয়ার খান উচ্চ বিদ্যালয়, অাবুতালেব মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ডোমসার জগত চন্দ্র ইনস্টিটিউট এন্ড কলেজ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি অাধ্যক্ষ মিজানুর রহমান বলেন, শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড শিক্ষা ছাড়া কোন জাতি উন্নতি লাভ করতে পারে না। শিক্ষাকে উন্নয়নের লক্ষ্যে সমকাল ও বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশন আয়োজিত জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসবের আয়োজন করায় তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার অক্লান্ত পরিশ্রমে মেধায় আজকে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। শিক্ষার মান উন্নয়ন হচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের কারণে ঘরে বসেই ছাত্রছাত্রীরা বিভিন্ন প্রযুক্তির মধ্য দিয়ে শিক্ষা অর্জন করছে। আজকের এই বিজ্ঞান বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ছাত্র-ছাত্রীদের মেধা বিকশিত হচ্ছে। শিক্ষার মান উন্নয়ন হচ্ছে। মেধাবিকাশ, মেধা যাচাই, মেধা প্রতিযোগিতা না থাকলে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়া যায় না। চলার পথ সহজ ও সুন্দর হয় না। আজকে যারা বিজ্ঞান বিতর্ক প্রতিযোগিতায় উপস্থিত হয়েছে তাদের জন্য আগামীতে পথ হবে উজ্জ্বল এবং সুগম।
‘শিক্ষার পাশাপাশি বিজ্ঞান এর বিকল্প নেই’ প্রতিযোগিতায় আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন হয়। বিঝারী উপসী তারাপ্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়। আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিযোগী বর্ণালী, আইরিন হোসাইন, নুসরাত জাহান, ইভা। বিঝারী উপসী তারাপ্রসন্ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিযোগী ছিলেন জান্নাতুল তানিয়া, জান্নাতুল ফেরদৌস, আরিফা আক্তার।