শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং, ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৭ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং

ভেদরগঞ্জের সখিপুরে কৃষককে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

ভেদরগঞ্জের সখিপুরে কৃষককে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলায় মনির বাবুর্চি (৩৫) নামে এক কৃষককে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার সখিপুর থানার চরসেনসাস ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বেড়াচাক্কি গ্রামের ফরিদ ভূয়ার মুদি দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মনিরের মৃত্যু হয়।
মনির বাবুর্চি উপজেলার সখিপুর থানার চরসেনসাস ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের বেড়াচাক্কি গ্রামের মৃত মকবুল বাবুর্চির ছেলে। তিনি কৃষি কাজ করতেন।
পুলিশ, স্থানীয় ও পরিবার সূত্র জানায়, উপজেলার সখিপুর থানার চরসেনসাস ইউনিয়নের বেড়াচাক্কি গ্রামের মনির বাবুর্চি গত বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) বিকেলে নদী থেকে কাঠ তুলতে একই গ্রামের সলেমান দিদারের ছেলে শাহদাত হোসেন দিদারের (৪০) গামছা নেয়। কাঠ উঠানোর এক পর্যায়ে শাহাদাত হোসেন তার গামছা ফেরত চায়। মনির আরেকবার কাঠ এনে গামছা দেব বললে- ক্ষিপ্ত হয়ে শাহাদাত হোসেন বাঁশ দিয়ে মনিরের তলপেটে আঘাত করে। মনির মাটিতে লুটিয়ে পরে। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। শনিবার মনিরের অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়ার পথে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে কাঁচপুর ব্রিজের কাছে পৌঁছলে তার মৃত্যু হয়। রাত ৯টার দিকে মনিরের মরদেহ শরীয়তপুরে পৌঁছে। রোববার ময়নাতদন্তর জন্য তার মরদেহ শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠনো হবে বলে জানান পুলিশ।
নিহত মনিরের স্ত্রী ফাতেমা বেগম বলেন, আমাদের ছোট ছোট চার ছেলে। স্বামী কৃষি কাজ করে সংসার চালাতেন। এখন সংসার কিভাবে চলবে। সন্তানরা কাকে বাবা বলে ডাকবে। আমার স্বামীর হত্যাকারীর বিচার চাই।
সখিপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক এনাম বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। আসামী পালিয়েছে। আসামীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।