Sunday 26th May 2024
Sunday 26th May 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

শরীয়তপুর পৌরসভার জন্য ৮৯ কোটি ৬৩ লাখ টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা

শরীয়তপুর পৌরসভার জন্য ৮৯ কোটি ৬৩ লাখ টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা

প্রথম শ্রেনীর শরীয়তপুর পৌরসভার ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৮৯ কোটি ৬৩ লাখ ৯ হাজার ৯১২ টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। রোববার (৩০ জুন) দুপুরে পৌরসভা মিলনায়তনে পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল এই বাজেট ঘোষণা করেন।
প্রস্তাবিত বাজেটে ব্যয় দেখানো হয়েছে ৮৮ কোটি ৪৯ লাখ ২২ হাজার ৫৫৮ এবং সমাপনী স্থিতি দেখানো হয়েছ ১ কোটি ১৪ লাখ ৩৮ হাজার ৩৫৪ টাকা।
বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে মেয়র রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল বলেন, বর্তমান পৌর পরিষদের কার্যকালীন সময়ের এটি চতুর্থ বাজেট। বর্তমান পৌর পরিষদ দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী প্রতিটি মুহুর্তকে মূল্যবান বিবেচনা করে পৌরসভার উন্নয়নের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। পৌর শহরকে পরিকল্পনা মাফিক উন্নয়নের মাষ্টারপ্ল্যান তৈরীর জন্য পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, পৌরসভার মিউনিসিপ্যাল গভরন্যান্স সার্ভিসেস প্রকল্প চলমান রয়েছে। যার মাধ্যমে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের প্রায় ৩০ কোটি টাকার টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। যার মধ্যে কিছু কাজ সমাপ্ত হয়েছে এবং বাকী কাজ চলমান রয়েছে। ২০২০-২১ অর্থ বছরে এমজিএসপি ২য় ফেজ শুরু হবে। ২য় ফেইজে অন্তর্ভূক্ত হলে ১০০-১৫০ কোটি টাকার কাজ করতে পারবো এবং পৌরসভাকে আধুনিক পৌরসভায় রুপান্তরে এগিয়ে যেতে পারবো। শহর পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও নাগরিক সেবার মানকে আরো বৃদ্ধি করার জন্য আমরা আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।
মেয়র বলেন, এই প্রিয় শহর আপনার আমার সকলের। আমরা সকলে মিলে এ শহরকে উদাহরণ যোগ্য পরিকল্পিত শহর হিসেবে গড়ে তুলতে পারি। ঘরবাড়ি নির্মাণের সময় সরকারী নিয়ম অনুসরণ করার জন্য সবার কাছে অনুরোধ করছি। প্রাকৃতিক জলাধার ও ড্রেনসমুহ ভরাট না করার জন্য পৌরবাসির প্রতি অনুরোধ করছি। আমরা চেষ্টা করছি ড্রেন নির্মাণের মাধ্যমে এলাকার জলাবদ্ধতা দূর করতে।
তিনি আরও বলেন, শহর উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে ৫০ কোটি টাকার প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেছি, যা অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। যার মাধ্যমে শরীয়তপুর পৌরসভায় শিশুদের চিত্ত বিনোদনের জন্য একটি শিশু পার্ক নির্মাণসহ অবকাঠামো উন্নয়ন রাস্তাঘাট, ড্রেন, কালভার্ট, স্থাপন, শহরের সৌন্দর্য্য বর্ধনের জন্য কর্মসূচি সম্পন্ন করা হবে।
সকল পৌরকর, ব্যবসা লাইসেন্স ফি, দোকান ভাড়া, পানির বিল, পৌরসভার যাবতীয় পাওয়ানা পরিশোধপূর্বক পৌরসভার উন্নয়ন কর্মকা-ের জন্য পৌরবাসির সহযোগিতা কামনা করেছেন পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল।

এ সময় প্যানেল মেয়র-১ বাচ্চু বেপারী, কাউন্সিলর মোতালেব ঢালী, সাইফুর রহমান রাজ্জাক, আব্দুর রশিদ, কাশেম মোল্যা, ইমু আক্তার, মাষ্টার কালাম তালুকদার সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, পৌরসভার অন্যান্য কাউন্সিলর, প্রকৌশলী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।