বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ ইং, ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে রমজান, ১৪৪২ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ ইং

গোসাইরহাটে সিগারেট বাকি না দেয়ায় হামলা, আহত- ৩

গোসাইরহাটে সিগারেট বাকি না দেয়ায় হামলা, আহত- ৩

শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলায় সিগারেট বাকি না দেয়ায় দোকানদারসহ তার পরিবারের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এতে তিনজন আহত হয়েছে। আহতদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) সকালে গোসাইরহাট থানায় একটি অভিযোগ হয়েছে। এর আগে গত ২০ এপ্রিল দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার নাগেরপাড়া ইউনিয়নের নাগেরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- ওই গ্রামের আতিকুর রহমান চৌধুরীর ছেলে রাকিব চৌধুরী (১৮), ইমন চৌধুরী (১৬) ও স্ত্রী কানন বেগম (৪০)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নাগেরপাড়া ইউনিয়নের নাগেরপাড়া গ্রামে মুদি দোকান রাকিব চৌধুরীর। ২০ এপ্রিল দুপুরে ওই দোকানে বাকিতে সিগারেটে কিনতে যান ওই গ্রামের আবুল হাওলাদারের ছেলে জাকির হোসেন হাওলাদার। রাকিব বাকিতে সিগারেট দেবে না বলে জানান। কিছুক্ষণ পর জাকির হোসেন হাওলাদার (৩০), তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম (২৫) ভাই আক্তার হোসেন হাওলাদার (৩৫), চাচা সুলতান হাওলাদার (৫৫), ভাই বারেক মাঝি (৩৬), ভাবি মোহসেনা বেগম (৩০), রুজি বেগম (৩০), শাশুড়ী মমতাজ বেগম (৬০) মিলে রাকিবের দাদা বীর মুক্তিযোদ্ধা হামিদ চৌধুরীর ঘর, দোকানপাট ভাংচুর ও লুটপাট করে। পরে রাকিব, ইমন ও কাননকে বেদম মারধর করে। আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। তারা এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে। এ ঘটনায় আহত কানন বেগম বাদি হয়ে গোসাইরহাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আহত রাকিবের ফুফু রোকেয়া বেগম বলেন, আমার বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের লোক হওয়া সত্যেও সাধারণ সিগারেটের বিষয় নিয়ে হামলা করে আমার ভাবি ও ভাইজতাদের আহত করেছে এবং বাবার ঘরসহ দোকানঘর ভাংচুর ও লুটপাট করেছে জাকির, আক্তার, সুলতান, বারেকরা। তাছাড়া ওদের সঙ্গে দীর্ঘদিন যাবত আমাদের জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। আমি হামলাকারীদের বিচার চাই।

আহত রাকিব চৌধুরী বলেন, জাকির হোসেন হাওলাদারের কাছে আমি আগের বাকি টাকা পাই। তাই বাকিতে সিগারেট দিতে চাইনি। তাই আমাদের ওপর হামলা চালায়।

তবে, অভিযুক্ত জাকির হোসেন হাওলাদারসহ তাদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে চাইলে তাদের পাওয়া যায়নি।

গোসাইরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা সোয়েব আলী বলেন, ওই ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।