বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ ইং, ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে রমজান, ১৪৪২ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ৬ই মে, ২০২১ ইং

নড়িয়ায় ঘুরে ঘুরে চিকিৎসা দেবে ‘মিনি হাসপাতাল’

নড়িয়ায় ঘুরে ঘুরে চিকিৎসা দেবে ‘মিনি হাসপাতাল’

করোনাভাইরাসের কারণে বিপর্যস্ত সারা দেশ। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এর প্রভাব কম নয় শরীয়তপুরেও। তাই সাধারণ নানা রোগে ভোগা মানুষের দোরগোড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে যাত্রা শুরু করেছে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা।

‘ডাক্তারের কাছে রোগী নয়, রোগীর কাছে ডাক্তার’ স্লোগান নিয়ে করোনা দুর্যোগে ঘরবন্দি মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতের লক্ষ্যে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য একেএম এনামুল হক শামীমের উদ্যোগে নড়িয়া উপজেলা এবং সখিপুর থানা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন এ ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা চালু করেছে।

৮ এপ্রিল নড়িয়া উপজেলার ধামারন গ্রামে ভার্চুয়ালি এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম। বর্তমানে ওই কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবায় দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের মোবাইল নম্বরগুলো (০১৭৮৮৭৩৬১৫১, ০১৯১৭৭৭৭২৬৪ ও ০১৭১৮৩৪৫৭৮৮) দিয়ে গ্রামে গ্রামে প্রচার করা হচ্ছে। রোগীরা ওই নম্বরে কল করে সমস্যার কথা জানালে চিকিৎসকরা সেখানে পৌঁছে যাবেন। প্রতিটি ইউনিয়নেই পর্যায়ক্রমে এই চিকিৎসক টিম যাবে। সম্পূর্ণ ফ্রি চিকিৎসা ও প্রয়োজনীয় ওষুধ দেবে এই চিকিৎসকরা। দুজন চিকিৎসক, চারজন নার্স ও দুইজন স্বাস্থ্যকর্মীর দল এই সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সেবা দেয়া ডা. মোবারক হোসাইন বলেন, একটি বিশেষায়িত শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত গাড়িকে একটি মিনি হাসপাতাল হিসেবে সাজানো হয়েছে। সেখানে রয়েছে চিকিৎসার সব ধরনের সরঞ্জাম। নড়িয়া উপজেলা ও সখিপুর থানার ইউনিয়নগুলো ঘুরে ঘুরে সব ধরনের চিকিৎসা সেবা দেবে। শুধু চিকিৎসা সেবা নয়, যারা চিকিৎসা নেবেন তাদের বিনামূল্যে ওষুধও দেয়া হবে।

সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভেদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির মোল্লা বলেন, ‘করোনায় থমকে আছে স্বাভাবিক জীবন। লকডাউন চলমান থাকায় সাধারণ রোগের চিকিৎসা নিতেও লোকজন হাসপাতালে যেতে পারছে না। সেসব মানুষের কথা ভেবেই পানিসম্পদ উপমন্ত্রী শামীম ভাইর উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা শুরু করা হয়।’

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম শামীম বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় হাসপাতালগুলোতে রোগীর ভিড় বেড়েই চলেছে। মানুষ হাসপাতালে যেতে ভয় পাচ্ছে। এগুলো চিন্তা করেই, চিকিৎসকদের মাঠে নামানো হয়েছে। চিকিৎসক দল ভ্রম্যমাণ গাড়ি নিয়ে মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় মানবতার সেবায় সবসময় নিয়োজিত থাকবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন।’