শুক্রবার, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ ইং, ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
শুক্রবার, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ ইং

নড়িয়া স্ত্রীকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যার ঘটনায় স্বামী আটক

নড়িয়া স্ত্রীকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যার ঘটনায় স্বামী আটক

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় স্ত্রী ইভা আক্তারকে (২০) বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে ফেলে হত্যা করে মরদেহ সেফটি ট্যাংকে ঢুকিয়ে রাখার ঘটনায় স্বামী দেলোয়ার ছৈয়ালকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ।
রোববার (৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা সাভার থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক দেলোয়ার ছৈয়াল উপজেলা ভুমখাড়া ইউনিয়নের চাকধ গ্রামের আব্দুল জাব্বার ছৈয়ালের ছেলে।
সোমবার দুপুরে শরীয়তপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে বিষয়টি জানিয়েছেন শরীয়তপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন।
এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল মামুন সিকদার (প্রশাসন ও অর্থ), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নড়িয়া সার্কেল) আব্দুল হান্নান মিয়া, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তানভীর হায়দার শাওন, পুলিশ সুপার কার্যালয়ের ডিআইও-১ আসাদুজ্জামান, ডিআইও-২ আজহারুল ইসলাম, নড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান হয়, নড়িয়া উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের আব্দুল মান্নান শেখের মেয়ে ইভা চাকধ এলাকায় নানী আনোয়ারা বেগমের কাছে থাকত। ঘটনার ৬ মাস আগে দেলোয়ার ছৈয়ালের সঙ্গে ইভার বিয়ে হয়। কিন্তু সাংসারিক জীবনে দেলোয়ারের সঙ্গে সুখি ছিল না ইভা। ইভা তার স্বামীর সাথে ঢাকা বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতে চাইত। স্বামী দেলোয়ার ঢাকা নিতে চাইত না। গত ২৫ জুন সোমবার রাতে উপজেলার চাকধ গ্রামে ওই ঘটনা নিয়ে দু’জনের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। তখন দেলোয়ার উত্তেজিত হয়ে ইভাকে নাকে মুখে কিলঘুষি মারতে থাকে। ইভা অজ্ঞান হয়ে যায়। অজ্ঞান হলে ইভাকে পার্শবর্তী একটি নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের ছাদে নিয়ে যায় দেলোয়ার। ছাদ থেকে ফেলে হত্যা করে মরদেহ বিল্ডিংয়ের সেফটি ট্যাংক এ লুকিয়ে রেখে পালিয়ে যায় দেলোয়ার। ঘটনা জানতে পেরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ও পুলিশ সেফটি ট্যাংকের ভেতর থেকে ইভার মরদেহ উদ্ধার করে।
এ ঘটনায় ২৭ জুন বুধবার ইভার মা বাদী হয়ে দেলোয়ার ছৈয়ালকে আসামী করে নড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় রোববার (৮ জুলাই) ঢাকা সাভার থেকে দেলোয়ারকে আটক করে পুলিশ। দেলোয়ার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন বলে জানান পুলিশ।

শরীয়তপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে স্ত্রীকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যার বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং করছেন পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন। ছবি- দৈনিক রুদ্রবার্তা


error: Content is protected !!