মঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১২ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
মঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং

নড়িয়ায় আ’লীগ প্রার্থীর সমর্থক পৌর মেয়রের গাড়ী লক্ষ করে ককটেল হামলা!

নড়িয়ায় আ’লীগ প্রার্থীর সমর্থক পৌর মেয়রের গাড়ী লক্ষ করে ককটেল হামলা!

 নড়িয়া পৌর মেয়র শহীদুল ইসলাম বাবু রাড়ির উপর বোমা হামলা করেছে দুর্বৃত্তরা। বাবু রাড়ি শরীয়তপুরর-২ ( নড়িয়া-সখিপুর) আসনের আওয়ামীলীগ প্রার্থী কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীমের সমর্থক।

বৃহস্পতিবার দিবাগতরাত রাত ১০টার দিকে নড়িয়া পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড পাইকপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

তবে এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এঘটনায় রাতেই থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

ঘটনার খবর পেয়ে রাতেই জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদশর্ন করেন এবং ঘটনাস্থল থেকে ককটেলের আলামত সংগ্রহ করেন।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে নড়িয়া পৌরসভার ঢালীপাড়া এলাকায় আওয়ামীলীগ প্রার্থী একেএম এনামুল হক শামীমের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনা শেষে নিজ বাড়িতে গাড়িতে ফিরছিলেন তিনি। পথিমধ্যে পাইকপাড়া এলাকায় বিএনপি নেতা টেনু মীরের বাড়ির সামনে পৌছালে মেয়রের গাড়ি বহরে পিছন থেকে ৪-৫টি ককটেল বোমা বিষ্ফোরন ঘটায় দুর্বৃত্তরা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই মটর সাইকেল যোগে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

খবর পেয়ে পুলিশ ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে মেয়র সহ অন্যান্যদের উদ্ধার করে। তবে এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

এ ঘটনায় নড়িয়া পৌর মেয়র শহীদুল ইসলাম বলেন, আমি আওয়ামীলীগ প্রার্থী এনামুল হক শামিম ভাইয়ের পক্ষে সক্রিয়ভাবে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছি। তাই ক্ষুব্ধ হয়ে বিএনপি-জামাতের সন্ত্রাসীরা আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই এই হামলা করেছে। আমি এমন ন্যাক্কার জনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং দোষীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী করছি।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মঞ্জুরুল হক আকন্দ বলেন, হামলার ঘটনার খবর শুনে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করি এবং জেলা পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। ঘটনাস্থল থেকে অালামত সংগ্রহ করা হয়েছে। মেয়র মামলার জন্য অভিযোগ দায়ের করেছেন।

নড়িয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরুল ইসলাম বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল মামুন সিকদার ও অামি ঘটনাস্থল পরিদশর্ন করে ককটেলের অালামত সংগ্রহ করি। যথাযথ তদন্ত করে আইনের আওতায় আনা হবে।


error: Content is protected !!