Friday 1st March 2024
Friday 1st March 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

নড়িয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম, ভাংচুর

নড়িয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম, ভাংচুর

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় জেডএইচ শিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শামীম গোরাপীর উপর হামলা চালিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসী নড়িয়া নওগাঁও গ্রামের কবির ঢালী, লাভলী ও রনি ঢালী। পরে দোকান ভাংচুর করেছে ওই সন্ত্রাসীরা।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) দুপুর ১টার দিকে উপজেলার ভোজেশ্বর পাইলট মোড় শামীম এন্টারপ্রাইজ দোকানের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নড়িয়া থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। শামীম আহত অবস্থায় শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি আছেন। আহত শামীম গোরাপী (২৩) উপজেলার পাঁচক গ্রামের আবু সিদ্দিক গোরাপীর ছেলে। তিনি জেডএইচ শিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবি এর ছাত্র।

স্থানীয় ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নড়িয়া নওগাঁও গ্রামের আবু তাহের ঢালীর ছেলে কবির ঢালী (৩৬), রনি ঢালী (২৮) ও আবু বক্করের স্ত্রী লাভলী বেগম (৩৫) একই উপজেলার পাঁচক গ্রামের আবু সিদ্দিক গোরাপীর বাড়িতে দুই বছর ধরে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। কিন্তু ১০ মাস যাবত বাসা ভাড়া (৫০ হাজার টাকা) দিচ্ছিল না কবির ঢালীরা। ভাড়া চাইলে দিচ্ছি, দেব বলে তালবাহানা শুরু করে তারা। এ বিষয় নিয়ে আবু সিদ্দিক গোরাপীর সাথে কবির ঢালীর গংদের মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়। কবির ঢালীগংরা ক্ষিপ্ত হয়ে রামদা, ছেনদা, লোহার রড ও চাপাতি নিয়ে গত মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে ভোজেশ্বর পাইলট মোড় শামীম এন্টারপ্রাইজ দোকানের সামনে আবু সিদ্দিক গোরাপীর ছেলে শামীম গোরাপীকে একা পেয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপুয়ে জখম করে। পরে প্রাণ বাঁচাতে দৌঁড়ে পা‌শের নুরুল আমীন সিকদারের নিউ হিরাজিল হোটেলে ঢুকলে সন্ত্রাসীরা হোটেল ভাংচুর করে। স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে শামীমকে হত্যার হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় শামীমকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় শামীমের বাবা আবু সিদ্দিক গোরাপী বাদী হয়ে নড়িয়া থানায় কবির ঢালী, লাভলী ও রনি ঢালীসহ অজ্ঞাত ৫/৬ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

শামীমের বাবা আবু সিদ্দিক গোরাপী, স্থানীয় লিটন খান, নুর মোহাম্মদ কবিরাজ, কাইয়ুম খান জানান, শামীম অনেক ভালো ছেলে। বাসা ভাড়া দন্দ্বে কবির ঢালী, লাভলী ও রনি ঢালীসহ ৫/৬ জন সন্ত্রাস শামীমকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে। ওই সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে বিচার করা হোক।

নড়িয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মঞ্জুরুল হক আকন্দ বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত চলছে। অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা হবে।