শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং, ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৭ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং

ডিবির অভিযানে শরীয়তপুরে নকল ঔষধসহ একজন আটক

ডিবির অভিযানে শরীয়তপুরে নকল ঔষধসহ একজন আটক
ডিবির অভিযানে শরীয়তপুরে নকল ঔষধসহ একজন আটক

শরীয়তপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অভিযানে বিপুল পরিমান নকল ঔষধসহ একজনকে আটক করা হয়েছে। কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রনে সোমবার সকালে ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ কবিরুল ইসলামের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশের একটি টিম জেলা শহরের চৌরঙ্গী এলাকায় অবস্থান করে। তখন একটি ব্যাটারী চালিত অটোবাইকে ওই নকল ঔষধ সরবরাহ করছিল।
অটোবাইকটি অস্বাভাবিক গতিতে যেতে দেখে গতি রোধ করে ডিবি পুলিশ। তল্লাশি করে অটোবাইকের ভেতর থেকে স্কয়ার ফর্মাসিটিক্যাল, বেক্সিমকোসহ বিভিন্ন নামিদামী কোম্পানীর ব্র্যান্ডের লেভেলে মোড়ানে নকল ঔষধ পাওয়া যায়। পরে স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালসহ অন্যান্য ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধিদের আটককৃত ঔষধ দেখালে তারা আসল ঔষধের সাথে তুলনা করে আটককৃত ঔষধ নকল প্রমাণ করে।
নকল ঔষধসহ আটককৃত সোহাগ হাওলাদার সদর উপজেলার দাদপুর পশ্চিম ভাষানচর গ্রামের এমারত হাওলাদারের ছেলে। আটককৃত সোহাগ জানায়, সে দাদপুর নতুন বাজারে অবস্থিত মা মেডিসিন এর মালিক লিটন মাদবর এই নকল ঔষধ নিয়ে তাকে নিয়মিত বাজারে পাঠায়। লিটনের নির্দেশনা অনুযায়ী সে ঔষধ বিক্রি করে।
স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালের ট্যারিটরি ম্যানেজার মাহাফুজ আলম বলেন, আটককৃত নকল ঔষধের মধ্যে আমার কোম্পানি উৎপাদিত কেলবো-ডি নামে একটি ঔষধ দেখি। পরে পাশের ফার্মেসী থেকে কেলবো-ডি’র একটা আসল কৌটা এনে আটককৃত ঔষধের সাথে ব্যাপক অমিল দেখি। তাছাড়া কোন ঔষধ কোম্পানী তাদের প্রতিনিধি ছাড়া কোন ঔষধ সরবরাহ করে না। এই ধরনের একটা চক্র নকল ঔষধ সরবরাহ করে বাজারে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে।
ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. কবিরুল ইসলাম বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণে এবং জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে শহরের চৌরঙ্গী এলাকায় কাজ করছি। এরমধ্যে একটা অটোবাইক অস্বাভাবিক গতিতে আসতে দেখে গতিরোধ করি। পরে অটোবাইকের চালক জানায় দাদপুর নতুন বাজারের মা মেডিসিন দোকান থেকে সে এই ঔষধ এনেছে। অটোবাইকে থাকা সকল ঔষধই নকল বলে প্রতিয়মান হয়। এই বিষয়ে চালককে আটক করা হয়েছে। জব্দতালিকা তৈরী শেষে মামলা করা হবে।