শনিবার, ৬ই জুন, ২০২০ ইং, ২৩শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
শনিবার, ৬ই জুন, ২০২০ ইং

মাদারীপুরের কালকিনিতে পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরদের প্রতিবাদ : উভয় পক্ষের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

মাদারীপুরের কালকিনিতে পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরদের প্রতিবাদ : উভয় পক্ষের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

মাদারীপুরের কালকিনি পৌর মেয়র মোঃ এনায়েত হোসেনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দূনীতির অভিযোগ এনে এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেন ৮জন পৌর কাউন্সিলর। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে পৌর ভবন চত্বরে এ প্রতিবাদ কর্মসুচীর আয়োজন করা হয়। এদিকে পৌর এলাকার বিভিন্ন হাট-বাজার, বাস টারমিনাল ও ট্রলার ঘাট ইজারার রাজস্ব বন্ধের ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে একইস্থানে প্রতিবাদ সভার আহবান করেন পৌর মেয়র মোঃ এনায়েত হোসেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের লোকজনের মাঝে চড়ম উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এবং ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে র‌্যাব ও থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। তবে ঘটনার পর থেকে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। এলাকা ও সরেজমিন সুত্রে জানা গেছে, পৌর মেয়র মোঃ এনায়েত হোসেনের সঙ্গে মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন দাদন, মোঃ হাবুল চৌকিদার, মোস্তফা মিয়া, মোঃ জসিম উদ্দিন ও মহিলা কমিশনারা সহ ৮জন পৌর কাউন্সিলরদের পৌরসভার বরাদ্দকৃত অর্থ ও উন্নয়ন মুলক কাজের টেন্ডার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে মেয়র মোঃ এনায়েত হোসেন ও ৮জন কাউন্সেলরা একই সময় একই স্থানে পাল্টা-পাল্টি প্রতিবাদ সভার আহবান করেন। পরে এ কর্মসুচি নিয়ে উভয় পক্ষের সমর্থকদের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে কালকিনি থানা পুলিশ ও মাদারীপুর র‌্যাব-৮ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এসময় উভয় পক্ষের লোকজন বিভিন্ন শ্লোগান এনে মিছিল প্রদর্শন করেন। তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়ন রয়েছে। এ প্রতিবাদ সভা নিয়ে উভয় পক্ষের মাঝে চড়ম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি মোঃ মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, খরর পেয়ে পুলিশ ও র‌্যাব ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এবং সেখানে এখনও পুলিশ মোতায়ন আছে।