মঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
মঙ্গলবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং

নড়িয়ায় গৃহবধূর আপত্তিকর ভিডিওর মাধ্যমে চাঁদা দাবি, যুবক আটক

নড়িয়ায় গৃহবধূর আপত্তিকর ভিডিওর মাধ্যমে চাঁদা দাবি, যুবক আটক

শরীয়তপুরের নড়িয়ার এক প্রবাসীর স্ত্রীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা দাবির অভিযোগে এক যুবককে আটক করেছে র‌্যাব-৮। শুক্রবার ভোর ৬টার দিকে নড়িয়া উপজেলার পাঁচগাও গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত সেলিম হাওলাদার (২৫) উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়নের পাঁচগাঁও গ্রামের মৃত মতিউর রহমান হাওলাদারের ছেলে।
র‌্যাব ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মো. সেলিম হাওলাদার নড়িয়া উপজেলার চন্ডিপুর এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ফুসলিয়ে গোপনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে এবং তার সাথে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে। পরে অন্তরঙ্গ মূহুর্তের দৃশ্য কৌশলে মোবাইলে ধারণ করে। আপত্তিকর দৃশ্য অনলাইনে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ঐ প্রবাসীর স্ত্রীর নিকট হতে কয়েক দফায় মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয় সেলিম। এক সপ্তাহ আগে আপত্তিকর ভিডিও’র মেমোরি কার্ড প্রবাসীর স্ত্রীর পরিবারের নিকট সরবরাহ করে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এ ঘটনায় প্রবাসী স্ত্রীর পরিবার আইনগত সহায়তা চেয়ে র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এরই প্রেক্ষিতে র‌্যাবের একটি দল নড়িয়া উপজেলার পাঁচগাও এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই যুবককে আটক করে।
র‌্যাব-৮ (সিপিসি-৩) মাদারীপুর ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন জানান, গৃহবধূর স্বামী প্রবাসে থাকার সুযোগে আটক বখাটে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা দাবি করে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ পরিবার আইনি সহায়তা চায়। পরে অভিযান চালিয়ে বখাটে সেলিমকে আটক করা হয়।
তিনি জানান, সেলিমকে আটককের পর তার নিকট হতে আপত্তিকর ভিডিও ও ছবি সম্বলিত মোবাইল ও মেমোরি কার্ড জব্দ করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা স্বীকার করে সেলিম। আটককৃত আসামীকে নড়িয়া থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে জানান তিনি।
ভুক্তভোগি প্রবাসীর স্ত্রী জানান, সেলিম আপত্তিকর দৃশ্য অনলাইনে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে তার পরিবারের কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা দাবি করে। তাই এ বিষয়ে মাদারীপুর র‌্যাবের কাছে সেলিমের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করা হয়। সেলিমের বিচার দাবী করেছেন ভুক্তভোগি প্রবাসী স্ত্রী।


error: Content is protected !!