শনিবার, ২০শে আগস্ট, ২০২২ ইং, ৫ই ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
শনিবার, ২০শে আগস্ট, ২০২২ ইং

আওয়ামী সরকারের গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের সুফল জনগণ পেতে শুরু করেছে : পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

আওয়ামী সরকারের গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের সুফল জনগণ পেতে শুরু করেছে : পানি সম্পদ উপমন্ত্রী

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সময় গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে উঠেছে। দেশের জনগণ ইতোমধ্যেই এর সুফল পেতে শুরু করেছে।
তিনি ২৮ জুন শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অব বাংলাদেশ (আইডিইবি) ভবনে ঢাকাস্থ নড়িয়া উপজেলা পেশাজীবী পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত ঈদ পুণর্মিলনী ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
উপমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে নতুন প্রজন্মের বাসযোগ্য করে গড়ে তুলতে রাতদিন কাজ করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনা সততা, দক্ষতা, মেধা ও অভিজ্ঞতায় অন্যদের চেয়ে সেরা। তাঁর মেধা শক্তির বলেই আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে উঠেছে।
তিনি বলেন, মাদার অব হিউম্যানিটি শেখ হাসিনা স্বপ্ন দেখেন, স্বপ্ন দেখান এবং তা বাস্তবায়ন করেন। তিনি বাংলাদেশকে জঙ্গি, সন্ত্রাস ও মাদক মুক্ত দেশ হিসেবে গড়ার ঘোষণা দিয়েছেন, ইতোমধ্যে তার অনেকটা বাস্তবায়ন হয়েছে এবং তিনি তা করবেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভিশনারী লিডার উল্লেখ করে এনামুল হক শামীম বলেন, তিনি যা বলেন তা বাস্তবায়ন করেন, সারাদেশেই আজ উন্নয়ন হচ্ছে।
বর্তমান সরকারের গৃহীত মেগা প্রজেক্ট-পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, কর্ণফুলি টানেল, পায়রা সমুদ্র বন্দর ইত্যাদির কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। বাংলাদেশ আজ খাদ্যে সয়ংসম্পূর্ণ।
এ কে এম এনামুল হক শামীম তার সংসদীয় এলাকা নড়িয়া-সখিপুরের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন উল্লেখ করে বলেন, শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলাকে নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা করতে এ পর্যন্ত ২৪ লাখ জিও ব্যাগ ফেলা হয়েছে। এ উপজেলার বিদ্যুৎ ঘাটতি মেটানো, চরাঞ্চলে বিদ্যুৎ পৌঁছানো এবং ৮ শতাধিক রাস্তা নির্মাণ ও মেরামত কাজ করা হচ্ছে।
ঢাকাস্থ নড়িয়া উপজেলা পেশাজীবী পরিষদের আহবায়ক মো: নূরে হেলালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংগঠনের সদস্য সচিব ডা. মোহাম্মদ ফারুক হোসেন শেখ, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল খোন্দকার ফোরহাদ হোসেন, সাবেক বাণিজ্য সচিব ফিরোজ আহমেদ, সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোশারফ আলী, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আবদুল্লাহ হারুন পাশা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ডা. ফারজানা হক স্বপ্না, জোবায়দা হক অজন্তা, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আনিছুর রহমান, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য, অতিরিক্ত সচিব মোঃ আলমগীর হোসেন, নড়িয়া সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেক, মোসা. সুলতানা স্বমা, সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের প্রভাষক আসাদুজ্জামান ইব্রাহিম, বাংলাদেশ পুলিশের উপ-পরিদর্শক মোঃ ইমরান সিকদার, ঢাকা জজ কোর্টের আইনজীবী এ্যাড. মুক্তা আক্তার, জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার রায়হান আহমেদ, আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মোঃ লোকমান হোসেন, রূপালী ব্যাংক লিমিটেড এর সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার বি এম মনির হোসেন, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব মোঃ নাছির উদ্দিন বাদল, খাদ্য অধিদপ্তরের ডিজি মোঃ কামাল হোসেন, বেক্সিমকোর জিএম প্রকৌশলী ইউসুফ হোসেন, অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা মাহফুজা বেগম রেবা, সাংবাদিক আতাউর রহমান, সাংবাদিক মুহাসিন মাদবর, সাংবাদিক পলাস আহসান, এসআই ইমরান হোসেন প্রমুখ বক্তৃতা করেন।


error: Content is protected !!