শুক্রবার, ৭ই আগস্ট, ২০২০ ইং, ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী
শুক্রবার, ৭ই আগস্ট, ২০২০ ইং

শরীয়তপুরে যাত্রা শুরু করলো নারী উদ্যোক্তাদের প্লাটফর্ম আমরা রমনী

শরীয়তপুরে যাত্রা শুরু করলো নারী উদ্যোক্তাদের প্লাটফর্ম আমরা রমনী

শরীয়তপুরে যাত্রা শুরু করলো নারী উদ্যোক্তাদের প্লাটফর্ম আমরা রমনী। আমরা রমনী সংগঠন হবে, যে সংগঠন সারা বাংলাদেশের নারী উদ্যোক্তাদের খুজে বের করবে এবং তাদেরকে এমন একটি প্লাটফর্ম দিবে যার মাধ্যমে নারীরা অনেক সুযোগ সুবিধা পেয়ে থাকবে।
আমরা রমনী প্লাটফর্মের উদ্যোক্তা মালিহা হোসেন বলেন, আমরা রমনী মহিলা উদ্যোক্তাদের জন্যে একটি সংগঠন হবে। সংস্থাটি তাদের অনুসন্ধান করে, সূচীকরন করে, প্রচার করতে এবং তাদেরকে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর সাথে সংযুক্ত করবে। আমরা রমনী প্লাটফর্মের মাধ্যমে নারীদের মধ্যে একটি শক্তিশালী নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা হবে। নারীদের কর্মজীবনের নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় যেমন সহায়ক করবে তেমনি সম্মিলিতভাবে সমাজের নারীদের সম্ভাবনার পথ খুঁজে বের করার ব্যাপারেও উৎসাহ জোগাবে। আমাদের সমাজের নারীদের অবস্থার ধীরে ধীরে পরিবর্তন হচ্ছে। নারীরা এখন বৃহত্তর পরিসরে সাফল্যমণ্ডিত। আর এই সাফল্যমণ্ডিত হওয়ার অন্যতম একটি কারণ হচ্ছে নারী উদ্যোক্তার সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়া। কিন্তু পশ্চিমা দেশগুলো থেকে আমাদের দেশে নারী উদ্যোক্তাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে অনেক প্রতিকূলতার সম্মুখীন হতে হয়। যেহেতু নারীকে দুর্বল ভাবা হয়, সেজন্য পরিবার বা সমাজ থেকে নেমে আসে নানা রকম বাঁধা।
একটি জরিপে দেখা গেছে, দেশের মোট শিল্প উদ্যোক্তার মধ্যে ১০ শতাংশের বেশি নারী। তবে ক্ষুদ্র শিল্পে নারীর সংখ্যা বেশি থাকলেও অন্যান্য শিল্পে নারীর সংখ্যা কম। তাই আমরা রমনী প্লাটফর্মের মাধ্যমে দেশের সফল নারী উদ্যোক্তা গঠন করা হবে।
আমাদের দেশের নারীরা পরিবার থেকে শারীরিক মানসিক নির্যাতন, বাল্যবিবাহসহ নানারকম সমস্যার সম্মুখীন হয়, যার ফলে কর্মক্ষেত্রে নারীর সংখ্যা অনেক কম। তাই আমরা রমনী প্লাটফর্মে নারীদের স্বাবলম্বী করে তোলার ব্যাপারে বিশেষভাবে এগিয়ে আসতে সহায়তা করবে। আমরা রমনী প্লাটফর্ম নারীদের বেকারত্ব হার কমানোর পাশাপাশি নারী উদ্যোক্তা বৃদ্ধি গঠন করবে।
আইসিটিতে নারী উদ্যোক্তাদের করণীয় এবং সমাজের প্রতিকূলতা থেকে বাঁচার উপায় সম্পর্কে ধারন অর্জনে সহায়তা করবে। যার ফলে অনেক নারী তাদের জীবনের পথ খুঁজে পাবে এবং উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে উঠবে। আমাদের মোট জনসংখ্যার অর্ধেকই নারী। অর্ধেক জনসংখ্যা যদি অবহেলিত হয় তাহলে একটি জাতি কখনোই প্রকৃত উন্নতির সোপানে উঠতে পারবে না। আমাদের সমাজের মেধাবী নারীরা যদি জোরালোভাবে দাঁড়ায় তাহলে সফল নারী উদ্যোক্তা গঠিত হবে খুব সহজেই।