বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং, ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

বাংলাদেশের সকল স্বপ্নই শেখ হাসিনাকে ঘিরে উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম

বাংলাদেশের সকল স্বপ্নই শেখ হাসিনাকে ঘিরে উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের সকল মানুষের স্বপ্নই বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঘিরে। কারণ, তিনি স্বপ্ন দেখেন, স্বপ্ন দেখান, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করেন। বাংলাদেশের ইতিবাচক পরিবর্তনের অগ্রনায়ক শেখ হাসিনা। তাকে ঘিরে সুন্দর আগামীর স্বপ্ন দেখে বাংলাদেশ।
তিনি আগামী প্রজন্মকে নিয়ে ভাবেন বলেই, মহাপরিকল্পনা ডেল্টা প্লান প্রণয়ন করেছেন এবং বাস্তবায়নে কাজ করে চলছেন। একারণে শুধু বাংলাদেশের মানুষই নয় বিশ্বনেতৃবৃন্দও মনে করেন- বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার হাতেই নিরাপদ।

শুক্রবার দিনব্যাপী উপমন্ত্রীর রত্নগর্ভা মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত বেগম আশ্রাফুন্নেছা ফাউন্ডেশন ও আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শরীয়তপুরের সখিপুরের দক্ষিণ তারাবুনিয়া, উত্তর তারাবুনিয়া, চরসেনসাস ও আরশিনগর ইউনিয়নের ৪ হাজার অসহায় পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার পর জিয়াউর রহমান, হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ ও বেগম খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পুরস্কৃত করেছিলেন।

তারা ক্ষমতায় থাকতে দেশের সম্পদ লুণ্ঠন করেছেন। তাদের দুঃশাসনের কথা মানুষ ভোলে নাই। এদেশের যা কিছু অর্জন তা বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ভেদরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির মোল্যা, ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তানভীর আল নাসীফ, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান এমএ কাইয়ুম পাইক, সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নাসির আহমাদ সরদার, আলী আকবর পাইক, চরসেনসাস ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বালা, দক্ষিণ তারাবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শাহজালাল মাল, উত্তর তারাবুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুস মোল্যা, আরশিনগর ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুব আলম সরদার, সখিপুর থানা যুবলীগের আহবায়ক খালেক খালাসী, যুগ্ম আহবায়ক রাসেল আহম্মেদ পলাশ, ছাত্রলীগের সভাপতি সোমেল সরদার ও সাধারণ সম্পাদক ইমরান তুষার প্রমুখ।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের উদ্দ্যেশে তিনি বলেন, কোনোভাবেই এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্ট করা যাবে না। কোনো মানুষকে হয়রানি করা যাবে না। কোন মানুষকে নাগরিক সেবার জন্য হয়রানি করা যাবে না। সরকারের উন্নয়ন জনগণের দ্বোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে হবে।

সকলকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে দেশটাকে এগিয়ে নিতে হবে। তাহলেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত উন্নত-সমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশ হবে। এসময় তিনি দক্ষিণ তারাবুনিয়ার মাল বাজারে ৯ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীণ ৮১ মিটার জয়বাংলা সেতুর কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন।