শুক্রবার, ১২ই আগস্ট, ২০২২ ইং, ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
শুক্রবার, ১২ই আগস্ট, ২০২২ ইং

ভোট চাই নৌকায় প্রার্থী দেবেন শেখ হাসিনা: বি এম মোজাম্মেল হক এমপি

ভোট চাই নৌকায় প্রার্থী দেবেন শেখ হাসিনা: বি এম মোজাম্মেল হক এমপি

ভোট চাই “নৌকা মার্কায়” প্রার্থী দেবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতির আত্মমর্যাদাবোধ ফিরে পাওয়ার জন্য দীর্ঘদিন আন্দোলন, সংগ্রাম লড়াই করেছেন। দীর্ঘ ২৪ বছরের নিপীড়ন, নিষ্পেশন, নির্যাতন, সীমাহীন বৈশম্যের হাত থেকে মুক্ত করেছেন বাঙালি জাতিকে। দীর্ঘ প্রায় ২৬ বছর লড়াই সংগ্রাম, আন্দোলন করে প্রায় ১৫ বছর কারাবরণ করে তিনি আমাদেরকে একটি স্বাধীন ভূখন্ড, জাতীয় পতাকা, স্বাধীনতার আতœ মর্যাবোধ, বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে দাড়াবার ব্যবস্থা করেছেন। এর পরের ইতিহাস সকলেরই জানা, আমি সেেিদকে যাবো না। স্বাধীনতার সেই মহানায়ক, বিশ্বের শোষিত বঞ্চিত নিপীড়িত মানুষের নেতা, বিশ্ব ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ সংগ্রামী নেতাকে পাকিস্তানী প্রেতাত্তারা, পূর্ব পাকিস্তানে জন্মগ্রহণ করা সেই অকৃতজ্ঞ কু সন্তানরা, আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রকারীদের সহায়তায় স্ব পরিবার জাতির পিতাকে হত্যা করলো! আমরা ভাগ্যবান জাতি যে, বঙ্গবন্ধু তনয়া শেখ হাসিনা এবং শেখ রেহানা দু’বোন জার্মানীতে লেখাপড়া করা অবস্থায় বেঁচে যায়। এরা দু’বোন বেঁচে না থাকলে জাতির পিতার সকল স্বপ্ন, সকল অর্জন ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাষ্ট কালরাতেই ধুলিস্যাত হয়ে যেতো।
বাঙালি জাতি ভাগ্যবান যে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ছোট বোন শেখ রেহানা বেঁচে ছিলেন বলেই আজ বাংলার ১৬ কোটি মানুষ বিশ্ব মানচিত্রে মাথা উঁচু করে দাড়াতে পেরেছে, তলাবিহীন ঝুড়ি থেকে আজ বাঙালি জাতিকে আত্মমর্যাদাশীল জাতি, নিন্ম আয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশ, উন্নয়নশীল দেশে রূপান্তর করতে সক্ষম হয়েছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দক্ষ রাষ্ট্র পরিচালনার ফলে দেশ আজ উন্নত, সমৃদ্ধ, শিক্ষিত, ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত, আমাদের চির চেনা উত্তর বঙ্গের মঙ্গা পালিয়েছে। আমাদের নেত্রী একটি সুপরিকল্পিত পরিকল্পনার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। আসুন আমরা দ্বিধা-দ্বন্ধ ভূলে গিয়ে একটি মঞ্চে দাড়িয়ে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে শেখ হাসিনার নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে, আমাদের বাঙালি জাতির কাংখিত সোনার বাংলা, ডিজিটাল বাংলা, বিশ্বের উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে উঠার জন্য নৌকা মার্কায় ভোট প্রার্থণায় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাই। নৌকা মার্কা কে পেল, কাকে দেয়া হলো, এই নিয়ে আমি ব্যক্তিগত ভাবে কখন ও চিন্তা করি না। প্রার্থী বাঁছাই করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধান অতিথি, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক, শরীয়তপর-১ (পালং- জাজিরা) আসনের বারবার নির্বাচিত জনপ্রিয় সংসদ সদস্য বি এম মোজাম্মেল হক এসব কথা বলেন।
শরীয়তপুর জেলা সার্কিট হাউজে হাজারো জনতার মাঝে শরীয়তপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি, চিতলিয়া ইউনিয়ন থেকে বারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুস ছালাম হাওলাদারের সভাপতিত্বে এ সময় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, আলহাজ্ব সাবেদুর রহমান খোকা সিকদার, জেলা আ.লীগের সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক বাবু অনল কুমার দে, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, আইনজীবী পরিষদের সভাপতি, কবি মীর্জা হযরত আলী সাঁইজী, যুগ্ন সম্পাদক সাবেক ছাত্রলীগ জেলা সভাপতি, বর্তমান জেলা আ.লীগ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমীন কোতোয়াল জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, বর্তমান সদর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন হাওলাদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা আক্তার শিল্পী, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সিদ্দিকুর রহমান পাহাড়, জেলা পরিষদের সদস্য শাখাওয়াত হোসেন হাওলাদার, জেলা মহিলা আ.লীগ, আওয়ামী যুব মহিলালীগসহ জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ওয়ার্ড কমিটির আ.লীগ ও সহযোগী সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দ/কর্মীবৃন্দ।


error: Content is protected !!