বৃহস্পতিবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ ইং, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ ইং

শরীয়তপুরে ভিক্ষুকদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে হাঁস-মুরগি বিতরণ

শরীয়তপুরে ভিক্ষুকদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে হাঁস-মুরগি বিতরণ

সমাজসেবা অধিদফতর কর্তৃক পরিচালিত “ভিক্ষাবৃত্তিতে নিয়োজিত জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থান” শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় শরীয়তপুর পৌরসভা ও সদর উপজেলার তালিকাভুক্ত ৪৪ জন ভিক্ষুককে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে অর্থ ও উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার (৮ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে সদর উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে জেলা প্রশাসন ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের আয়োজনে এ অর্থ ও উপকরণ বিতরণ করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের। বক্তব্যে জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের বলেন, বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রী ভিক্ষুকদের পুর্বাসন করছেন।
ভিক্ষুকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা ভিক্ষা করবেন না। আপনারা যে যা কিছু চেয়েছেন সবাইকে সব কিছু দেয়া হচ্ছে। যা লাগবে আমাদের কাছে বলবেন আমরা দেব। তবুও ভিক্ষায় নামবেন না। কর্ম করে খাবেন। নিজে কাজ করে নিজের পায়ে দাঁড়াবেন।
তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের পাশে আছেন। সরকার আপনাদের পাশে আছেন। প্রধানমন্ত্রী আছেন বলেই দেশ উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে।
সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহবুর রহমান শেখের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা: হাবিবুল্লাহ্।
এ সময় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. বেলাল হোসেন, চন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ওমর ফারুক মোল্যা, তুলাসার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান ঢালী, পালং ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবুল হোসেন দেওয়ান, শরীয়তপুর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ট্রেইনার মোস্তাকিম বিল্লাহ, জেলা বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক মো. রাজীব আহমেদ মাদবর প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
উপস্থাপনায় ছিলেন, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশিদ।
জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন জানান, ৪৪ জন ভিক্ষুককে নগদ অর্থ ও উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। তার মধ্যে ৩ জনকে সেলাই মেশিন, ১০ জনকে জমি কেনার জন্য অর্থ, ১০ জনকে ছাগল, ৬ জনকে চায়ের দোকানের সামগ্রি, ১৪ জনকে হাঁস-মুরগি ও ১ জনকে বিক্রির খেলনা সামগ্রি বিতরণ করা হয়েছে। তাছাড়া প্রতিজনকে ২ হাজার করে নগদ টাকা বিতরণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।


error: Content is protected !!