শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী
শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

বঙ্গবন্ধু’র আদর্শকে বুকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে : উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম এমপি

বঙ্গবন্ধু’র আদর্শকে বুকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে : উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম এমপি

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, সোনার বাংলা গড়তে সোনার মানুষ প্রয়োজন, তাই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অনেক বড় স্বপ্ন, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে ছাত্রলীগ গঠন করেছিলেন। দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনসহ সব সংগ্রামে ছাত্রলীগের সর্বোচ্চ ও গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা ছিল। একারণে বঙ্গবন্ধুই বলেছিলেন, “ছাত্রলীগের ইতিহাসই হচ্ছে বাংলাদেশের ইতিহাস।” তাই ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে এমনভাবে আচরণ করা উচিত যাতে এ সংগঠন একটা মর্যাদাপূর্ণ হয় এবং দেশ ও জাতির কাছে আস্থা অর্জন করে চলতে পারে। তাই জননেত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রলীগের হাতে কাগজ ও কলম তুলে দিয়েছিলেন। কারণ জননেত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বাস করেন, “ছাত্ররাই আমাদের ভবিষ্যৎ”। তাই সবাইকে বঙ্গবন্ধু’র আদর্শকে বুকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে।

ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এনামুল হক শামীম আরও বলেন, জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ছাত্রদের হাতে অস্ত্র এবং অবৈধ টাকা তুলে দিয়েছিলেন। আর আমি সৌভাগ্যবান ছাত্রলীগের সভাপতি থাকাকালিন সময়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আমার (ছাত্রদের) হাতে বই এবং কলম তুলে দিয়েছিলেন। তাই ছাত্রলীগের সঠিক ইতিহাস জাতির কাছে তুলে ধরতে হবে। ছাত্রলীগের কর্মীদের মাদক, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও নৈতিকতার প্রশ্নে আপোসহীন থাকতে হবে। ছাত্রলীগের যে ঐতিহ্য ও অবদান রয়েছে, সেটা প্রতিটি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীর মনে রাখতে হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ মেনে শিক্ষা-শান্তি-প্রগতির পতাকাকে সমুন্নত রেখে আগামীদিনের বিশ্বমানের নাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে।

জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু’র ৪৬তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার (২৮ আগস্ট) সকাল ১১টায় শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা, নড়িয়া সরকারি কলেজ ও সখিপুর থানা ছাত্রলীগ আয়োজিত দোয়া ও স্মরণসভায় অনলাইনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এনামুল হক শামীম বলেন, খুনি জিয়া-মোস্তাকরা ভেবেছিলো, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করলেই বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানো যাবে, কিন্তু ওরা বুঝতে পারে নাই জীবিত বঙ্গবন্ধুর চেয়ে মৃত বঙ্গবন্ধু অনেক বেশি শক্তিশালী। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ এক এবং অভিন্ন।

এতে অংশগ্রহণ করেন, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য জহির সিকদার, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নুর এ আলম আশিক, নড়িয়া উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আসাদুজ্জামান বিপ্লব, কলেজের আহবায়ক ইমরান খালাসী, সখিপুর থানার সভাপতি সোমেল সরদার, সাধারন সম্পাদক ইমরান বেপারী, নড়িয়া উপজেলার যুগ্ম আহবায়ক স্বপন দেওয়ান, রিয়াদ শেখ, রফিকুল ইসলাম আকাশ, শিমুল হাওলাদার, কলেজের যুগ্ম আহবায়ক রফিক মল্লিক, সিহাব বিন নির্জন, সখিপুর থানার সহ-সভাপতি মিনহাজুল ইসলাম রাজু, রাসেল খান, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জাফর আজিজ, নুরুল আমিন, কবিতা সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক জোবাইদা আফরোজ রিয়া প্রমূখ।

বঙ্গবন্ধুর লেখা বই “অসমাপ্ত আত্মজীবনী”, “কারাগারের রোজনামচা” ও “আমার দেখা নয়া চীন”সহ গোয়েন্দা রিপোর্টের সব বই পড়তে তিনি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের পরামর্শ দেন উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম।