মঙ্গলবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী
মঙ্গলবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ভাইভা দিয়ে আইনজীবী সনদ প্রদানের দাবিতে শরীয়তপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি

ভাইভা দিয়ে আইনজীবী সনদ প্রদানের দাবিতে শরীয়তপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি

করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় আইনজীবী অন্তর্ভুক্তি পরীক্ষায় এমসিকিউ (নৈর্ব্যক্তিক) উত্তীর্ণ প্রায় ১৩ হাজার শিক্ষার্থীকে কালবিলম্ব না করে ভাইভা দিয়ে আইনজীবী সনদ প্রদানের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি করেছেন শিক্ষার্থীরা।

‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট ২০১৭ ও ২০২০ সালের বাংলাদেশ বার কাউন্সিল এনরোলমেন্ট এম. সি. কিউ. পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সকলকে গেজেট প্রকাশের মাধ্যমে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত করণের জোড় দাবি জানানো হয় এবং রবিবার ১৫ নভেম্বর দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে জেলা আইনজীবী সমিতি ও শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মুখে শিক্ষানবিশ কাজলের নেতৃত্বে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হয়।

শরীয়তপুর থেকে এম. সি. কিউ. উত্তীর্ণ শিক্ষানবিশ আইনজীবীগণ বলেন, আমরা বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের আইনজীবী হিসেবে এনরোলমেন্ট প্রক্রিয়ার প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ২০১৭ সালের ২১ জুলাই এবং চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি উত্তীর্ণ শিক্ষানবিশ আইনজীবী। দীর্ঘদিন ধরে বার কাউন্সিলে এনরোলমেন্ট পরীক্ষা সম্পন্ন না হওয়ায় আমরা মানবেতর জীবনযাপন করছি। উচ্চ আদালতের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও ২০১৮ ও ২০১৯ সালে কোনও এনরোলমেন্ট পরীক্ষা না হওয়ায় শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা ২০১৯ সালের ১১ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে পরীক্ষার দাবিতে আমরণ অনশন করি।

তারা আরও বলেন, ওই অনশনের পরিপ্রেক্ষিতে চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি আইনজীবী তালিকাভুক্তকরণ পরীক্ষার প্রিলিমিনারি সম্পন্ন হয় এবং ওই পরীক্ষায় ৯ হাজারের অধিক শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হই। এছাড়াও ২০১৭ সালের পরীক্ষায় এমসিকিউ উত্তীর্ণ আরও প্রায় ৪ হাজার শিক্ষার্থী পাস করে লিখিত পরীক্ষার আশায় বসে আছি।

তারা বলেন, বর্তমান বার কাউন্সিলের কমিটিতে যেসব নির্বাচিত সদস্য আছেন, তাদের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। তাই বার কাউন্সিলের বর্তমান কমিটির সফলতাই হচ্ছে সরকারের সফলতা, বার কাউন্সিলের বর্তমান কমিটির ব্যর্থতাই হচ্ছে সরকারের ব্যর্থতা। তাই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে ভাইভার মাধ্যমে আইনজীবী সনদ প্রদানের আহ্বান জানান শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা। পরে শরীয়তপুরের শিক্ষানবিশ আইনজীবীরা তাদের সনদের জন্য জোড় দাবি পেশ করেন।

মানববন্ধনে এ সময় উপস্থিত ছিলেন মো: মোহাম্মদ মাসুদ দেওয়ান, মো: লোকমান হোসাইন, মো: বাবুল হাওলাদার, মো: রুমি হোসেন, মিলন হালদার, পলাশ দত্ত, শাহীন, মো: মিজানুর রহমান, রাশেদ খান, সোহেল, মো: মাহাবুব রহমান, জাকির, নাসরিন নাহার, হালিমা, খালেদা আক্তার, রুনা লায়লা, তাহমিনা খানম স্নিগ্ধা, তানজিলা, সারমিন, মামুন অর রশিদ, মামুন খান, মিতু আক্তার, অভিজিৎ সরকার ও মোক্তারসহ প্রমুখ শিক্ষানবিশ আইনজীবী।