শনিবার, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং, ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
শনিবার, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং

শরীয়তপুর মাইক্রো গাড়ী খাদে পরে দুর্ঘটনায় এডভোকেট বাবা ও শিশু নিহত

শরীয়তপুর মাইক্রো গাড়ী খাদে পরে দুর্ঘটনায় এডভোকেট বাবা ও শিশু নিহত

শরীয়তপুর জেলার জাজিরা-শরীয়তপুর সড়কের রাজনগরের জামতলা সড়কের পাশে মাইক্রো গাড়ী খাদে পরে দুর্ঘটনায় এডভোকেট রাশেদুল ইসলাম (৪২) ও তার মেয়ে মইশা (৩) ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

শনিবার ২৯ অক্টোবর চট্রগ্রাম থেকে শরীয়তপুর আসার পথে রাত ২:৩০ মিনিটের সময় শরীয়তপুরর নড়িয়া উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের জামতলা নামক স্থানে সড়কে দুর্ঘটনায় নিহত হলেন। রাশেদ শরীয়তপুর জজ আদালতের এপিপি ও শরীয়তপুর আইনজীবী সমিতির সদস্য। শরীয়তপুর জেলার আঙ্গারিয়া ইউনিয়নের ভাসানচর এলাকার বাসিন্দা।

শরীয়তপুর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট জহিরুল ইসলাম ও সাধারন সম্পাদক ্এডভোকেট আবুসাঈদ বলেন, রাশেদুল ইসলাম শরীয়তপুর জজ আদালতের এপিপি ও শরীয়তপুর আইনজীবী সমিতির সদস্য। রাশেদ নিজেই গাড়ী ড্রইভ করে আসছিলেন। পথি মধ্যে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে খাদে পওে গিয়ে রাশেদ ও তার ৩বছর বয়সের শিশু কন্যা নিহত হয়েছে। গাড়ীতে থাকা এডভোকেট রাশেদুল ইসলামের স্ত্রী ও তার শিশু পুত্রকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতদের পরিবার সূত্র জানায়, গত ২৭ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) ব্যক্তিগত প্রাইভেটকার নিয়ে কক্সবাজার ঘুরতে যান রাশেদ ও তার পরিবার। শনিবার রাতে বাড়িতে ফেরার সময় নড়িয়া উপজেলার জামতলা এলাকায় শরীয়তপুর-ঢাকা মহাসড়কে পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেটকারটি পাশের খাদে পড়ে উল্টে যায়। পরে স্থানীয়রা আহতদের জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাশেদুল হক ও তার মেয়ে মাইসাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রাইভেটকারচালক কামরুল হাসান বলেন, কক্সবাজার থেকে শনিবার রাত ১১টার দিকে ঢাকার উত্তরা আসি। কক্সবাজার থেকে উত্তরা পর্যন্ত আমি ড্রাইভ করি। পরে সেখান থেকে রাশেদ স্যার ড্রাইভিং করেন। স্যারকে অনেক অনুরোধ করেছি, আপনার ড্রাইভিং করার দরকার নেই। তিনি ড্রাইভিং করায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

রোবাবার ৩০ অক্টোবর নামাজে জানাজা বাদ আসর শরীয়তপুর আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গনে ও ২য় জানাজা তার নিজ গ্রামে অনুষ্ঠিত হবে।
নড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাবুব আলম জানান, দূর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কাজ করছেন। গাড়ী খাদে পরে এই দূর্ঘটনা ঘটেছে। এতে দুইজন নিহত হন বাকিদের উদ্ধার করে হসাপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

আর আহতরা হলেন- নিহত রাশেদের স্ত্রী সোহানা আক্তার মিলি (২৬), বড় মেয়ে মেবিন (৬) ও প্রাইভেটকারচালক কামরুল হাসান (২৭)। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

তার মৃত্যুতে শোক বার্তা জানিয়েছেন ইকবাল হোসেন অপু এমপি, শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র এড. পারভেজ রহমান জন, শরীয়তপুর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট জহিরুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক ্এডভোকেট আবুসাঈদ ও দৈনিক রুদ্রবার্তা’র সম্পাদক শহীদুল ইসলাম পাইলট সহ অনেকেই।


error: Content is protected !!