সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ ইং, ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৬ই মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ ইং

ভেদরগঞ্জে নিরাপদ সব্জী উৎপাদন ও বাজার সম্প্রসারনে এসডিএস এর কার্যক্রম

ভেদরগঞ্জে নিরাপদ সব্জী উৎপাদন ও বাজার সম্প্রসারনে এসডিএস এর কার্যক্রম

ক্রিশ্চিয়ান এইড বাংলাদেশ এর আর্থিক সহায়তায় এসডিএস শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে (কাঁচিকাটা, চরভাগা ও উত্তর তারাবুনিয়া) “পিস্যাট-২ প্রকল্পের” (প্রোমোটিং সাসটেইনাবল এগ্রিকালচার টেকনোলোজি ফর ক্লাইমেটিক ভালনারাবল চর ডুয়েলারস) কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে।
এই প্রকল্পের উল্লেখযোগ্য অর্জন সমূহ হলো-
১। প্রকল্পের তালিকাভূক্ত কৃষকরা মৃত্তিকা যন্ত্র ব্যবহার করে মাটির পুষ্টি গুণ পরীক্ষা করে উপযুক্ত বীজ বপন এবং পরিমান মত সার ব্যবহার করতে পারে। ফলে উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে এবং নিরাপদ সবজি উৎপাদন করতে পারছে।
২। প্রকল্পভূক্ত এলাকায় ২ টি কেঁচো সার উৎপাদন ও বাজারজাতকরন এন্টারপ্রাইজ তৈরী করা হয়েছে।
৩। নিরাপদ সব্জীর বাজার সম্প্রসারনে নিরাপদ সব্জীর বিষাক্ততা পরীক্ষার জন্য “গ্রীন টেষ্ট নাইট্রেট টেষ্টার” ক্রয় করা হয়েছে যা প্রকল্পভূক্ত এলাকায় কালেকশন পয়েন্টে (ভেদরগঞ্জ উপজেলার কাঁচিকাটা, চরভাগা ও উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়ন) ব্যবহার করা হচ্ছে।
৪। সর্বপরি কৃষকদের উৎপাদিত পণ্যে ক্ষতিকর বালাইনাশক এর উপস্থিতি আছে কিনা; তা প্রমানের জন্য বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (ইঅজও) এর ল্যাবরেটরীতে ৬টি পণ্য (টমেটো, মিষ্টি কুমড়া, বেগুন, ব্রকলি, লেটুস পাতা ও ক্যাপসিকাম) পরীক্ষা করা হয়েছে, তাতে কোন প্রকার ক্ষতিকর বালাইনাশকের উপন্থিতি পাওয়া যায় নি; এই মর্মে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়েছে।
৫। প্রকল্পের আওতায় বসবাসকারী কৃষকদের রাসায়নিক সার ও বালাইনাশকের ব্যবহার কমিয়ে কেঁচো সার ও জৈব বালাই দমন পদ্ধতি ব্যবহার শিখিয়ে নিরাপদ সবজি উৎপাদন বৃদ্ধিতে উৎসাহিত করা হয়েছে।
৬। উৎপাদনকারী ও কৃষকদের কৃষিপণ্যা বাজার ও অন্যান্য সেবা সহায়তার উন্নয়ন করা হয়েছে; যার ফলে চরে বসে সহজেই এলএসপি’দের কাছ থেকে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ক্রয় করতে পারছে।
৭। কৃষকরা এখন নিজেরা কেঁচো সার উৎপাদন করে তাদের জমিতে প্রয়োগ করে এবং অন্যান্য কৃষকের কাছে বিক্রি করে। এ বছর ৬ জন কৃষক তাদের উৎপাদিত কেঁচো সার নিজেদের জমিতে প্রয়োগ করে অতিরিক্ত সার অন্যান্য কৃষকদের নিকট বিক্রি করে ৫০ হাজার টাকা আয় করেছে। প্রকল্পের সাথে জড়িত ৯০% কৃষক তাদের নিজস্ব উৎপাদিত জৈব সার এবং জৈব বালাই দমন পদ্বতি ব্যবহার করছে।


error: Content is protected !!