শুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ ইং, ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
শুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

শরীয়তপুর অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ক সেমিনার

শরীয়তপুর অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন বিষয়ক সেমিনার

শরীয়তপুরে ১০-ই ডিসেম্বর সোমবার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সভাকক্ষে সকাল ১০টায় সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়িত শরীয়তপুর জেলাধীন বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচি বিষয়ক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর জেলার জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের।
সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মোঃ কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর জেলার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তানভীর হায়দার শাওন, শরীয়তপুর জেলার সিভিল সার্জন ডা. খলিলুর রহমান, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক অনল কুমার দে।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষক, সাংবাদিক, বেদে ও হরিজন প্রমূখ।
অনুষ্ঠানের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে, (দলিত, বেদে ও হরিজন) অনগ্রসর সম্প্রদায়ের জীবনমান উন্নয়নে সমাজসেবার মাধ্যমে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা।
এ সময় আলোচনা করতে গিয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে কাজী আবু তাহের বলেন, আমাদের দেশের আর্থ-সামাজিক সকল ক্ষেত্রে উন্নয়ন করতে হলে পেশাজীবি সকল সেক্টরে উন্নয়ন সাধন করতে হবে। জাতি ভেদাভেদ থাকলে এ উন্নয়ন সম্ভব নয়। এজন্য আমাদের বর্তমান সরকার প্রধান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিম্নশ্রেণীর মানুষগুলো যাতে শিক্ষিত হয় ও সকল ধরনের সুযোগ-সুবিধা পায় সেজন্য কাজ করে চলেছেন। শরীয়তপুরের অনগ্রসর পেশাজীবি কোন মানুষ যেন এ সুযোগ-সুবিধা থেকে বাদ না পড়ে সেজন্য সমাজসেবা ও শরীয়তপুর সকল এনজিও গুলোকে কাজ করার আহবান জানান তিনি।
শরীয়তপুরে ১২ হাজার ৫৯১ জন অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর মধ্যে ১১ হাজার ৬০৫ জন দলিত, ৪৬৭ জন বেদে, ৫১৯ জন হরিজন রয়েছে। যার মধ্যে ৪০৬ জন বয়স্কভাতা সুবিধা, ২৩৯ জন ছাত্র-ছাত্রী উপবৃত্তি সুবিধা, ৫০ জন বিভিন্ন প্রশিক্ষণের সুবিধা পেয়েছে। ধারাবাহিকভাবে ১২ হাজার ৫৯১ জন এ জনগোষ্ঠীকে ১০০% সুবিধা প্রদান করার প্রতিশ্রুতি নিয়ে এ সেমিনারে আলোচনা হয়।


error: Content is protected !!