বৃহস্পতিবার, ২রা জুলাই, ২০২০ ইং, ১৮ই আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ২রা জুলাই, ২০২০ ইং

গণশুনা‌নি‌তে সক‌লের যৌক্তিক প্রস্তাব শরীয়তপুরের স‌খিপুর হ‌বে উপ‌জেলা

গণশুনা‌নি‌তে সক‌লের যৌক্তিক প্রস্তাব শরীয়তপুরের স‌খিপুর হ‌বে উপ‌জেলা
গণশুনা‌নি‌তে সক‌লের যৌক্তিক প্রস্তাব শরীয়তপুরের স‌খিপুর হ‌বে উপ‌জেলা

শরীয়তপু‌রের সখিপুর থানাকে উপজেলায় উন্নীত করার লক্ষ্যে যৌক্তিক প্রস্তাব প্রেরণের নিমিত্তে শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের কার্যাল‌য়ের স‌ম্মেলন ক‌ক্ষে ‘গণশুনানি’ অনু‌ষ্ঠিত হয়। গণশুনা‌নি‌তে ভেদরগঞ্জ ও স‌খিপুরের সাধারণ জনগণ, জনপ্র‌তি‌নি‌ধি ও রাজ‌নৈ‌তিক ব্য‌ক্তিরা সক‌লেই চায় স‌খিপুর থানা‌ হোক উপজেলা । শ‌নিবার (২৯ ফেব্রুয়া‌রি) সকাল সা‌ড়ে ১০টার দি‌কে এ গণশুনানি অনু‌ষ্ঠিত হয়।

এ সময় প্রধান অতি‌থি হি‌সে‌বে বক্তব্য রা‌খেন পা‌নিসম্পদ উপমন্ত্রী ও শরীয়তপুর-২ আস‌নের সংসদ সদস্য একেএম এনামুল হক শামীম। প্রধান অতি‌থি বক্ত‌ব্যে ব‌লেন, ভেদরগ‌ঞ্জে র‌য়ে‌ছে ৪টি ইউনিয়ন আর স‌খিপুর থানায় ইউনিয়ন র‌য়ে‌ছে ৯টি। শুধু এই ইউনিয়নগু‌লোই নয় শরীয়তপুরের প্র‌তি‌টি ইউনিয়নের সব ক্ষে‌ত্রে উন্নয়ন ক‌রে‌ছেন বর্তমান সরকার। শরীয়তপুর সদর-স‌খিপুর নর‌সিংহপুর চার লে‌নের সড়ক হ‌চ্ছে। জা‌জিরা নাও‌ডোবা-শরীয়তপুর সদর পর্যন্তও হ‌চ্ছে চার লে‌নের সড়ক । বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হা‌সিনা প্রধামন্ত্রী হ‌লে সড়ক, বিদ্যুৎ, স্বাস্থ্য, শিক্ষাসহ সকল ক্ষে‌ত্রে উন্নয়ন হয়। পদ্মা সেতু হয়। শেখ হা‌সিনার নেতৃ‌ত্বে ২০২১ সা‌লে বাংলা‌দেশ হ‌বে মধ্যম আয়ের দেশ। ২০৪১ সা‌লের ম‌ধ্যে হ‌বে উন্নয়নশীল দেশ।

শরীয়তপু‌রের জেলা প্রশাসক কাজী আবু তা‌হে‌রের সভাপ‌তি‌ত্বে বি‌শেষ অতি‌থি হি‌সে‌বে বক্তব্য রা‌খেন শরীয়তপুর-১ আস‌নের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু, শরীয়তপুর-৩ আস‌নের সংসদ সদস্য না‌হিম রাজ্জাক, পু‌লিশ সুপ‌ার এস.এম. আশরাফুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লী‌গের সভাপ‌তি ও জেলা প‌রিষ‌দের চেয়ারম্যান ছা‌বেদুর রহমান খোকা শিকদার, সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে।

এ সময় জেলা, উপ‌জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মু‌ক্তি‌যোদ্ধা, জেলা প‌রিষদ সদস্য, বি‌ভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বর, ভেদরগঞ্জ ও স‌খিপুরের গন্যমান্য ব্য‌ক্তিবর্গ উপ‌স্থিত ছি‌লেন।

‌খোঁ‌জ নি‌য়ে জানা যায়, স্বাধীনতার পর ১৯৭৬ সালে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় মাদারীপুরের পূর্বাঞ্চল নিয়ে একটি নতুন মহকুমা গঠিত হবে। বিষয় নির্বাচনী কমিটির সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে বিশিষ্ট সমাজ সংস্কারক, ব্রিটিশ বিরোধী তথা ফরায়েজী আন্দোলনের নেতা হাজী শরীয়ত উল্লাহর নামানুসারে এর নাম করণ হয় শরীয়তপুর এবং এর সদর দপ্তরের জন্য পালং থানা অঞ্চলকে বেছে নেয়া হয়। ১৯৭৭ সালের ১০ ই আগস্ট রেডিওতে সরকার কর্তৃক মহকুমা গঠনের ঘোষণা দেয়া হয় । এর পর সরকারের প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাসের ফলে শরীয়তপুর মহকুমাকে জেলায় রূপান্তর করা হয়। ১৯৮৩ সালের ৭ই মার্চ জেলা গঠনের ঘোষণা হয়। ১৯৮৪ সালের ১লা মার্চ শরীয়তপুর জেলার শুভ উদ্বোধন করেন তৎকালীন তথ্য মন্ত্রী নাজিম উদ্দিন হাশিম। বর্তমান শরীয়তপুর বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী জেলা। জেলাটি‌তে ৬টি উপ‌জেলা ছিল। ১৯৯৮ সা‌লে ভেদরগঞ্জ উপ‌জেলা‌কে দু‌টি থানায় রূপান্তর ক‌রেন সা‌বেক পা‌নিসম্পদ মন্ত্রী প্রয়াত আব্দুর রাজ্জাক । ভেদরগঞ্জ উপ‌জেলায় অন্তর্গত সখিপুর থানা।
এখন স‌খিপুরও হ‌বে উপ‌জেলা।