শনিবার, ২০শে আগস্ট, ২০২২ ইং, ৫ই ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
শনিবার, ২০শে আগস্ট, ২০২২ ইং

নড়িয়ায় ফুলের চারা লাগানোকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ

নড়িয়ায় ফুলের চারা লাগানোকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ

শরীয়তপুর নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক গ্রামে অন্যের জমিতে ফুলের চারা লাগাতে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে জমির মালিকসহ চারজনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। আহত বিপ্লব দাস, কবিতা রানী, সুমন দাস নড়িয়া উপজেলার মূলফতগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে সবিতা রানী দাসকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নড়িয়া মুলফতগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২৭ অক্টোবর শনিবার সকালে সিমা রানী, বিপ্লব দাসের জমিতে ফুুলচারা লাগাতে গেলে বিপ্লবের বোন সবিতা রানী দাস বাঁধা দেয়। এসময় দুপক্ষ তর্ক-বিতর্কের জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে বাসুদেব, সুদেব, সুধীর, সজিব, জয়দেব, অয়ন, সীমা রানীসহ আরো কয়েকজন মিলে সবিতা রানীকে মারধর করে। তখন তার পরিবারের লোক বিপ্লব দাস, সুমন দাস ও কবিতা এগিয়ে এলে তাদেরকেও রড, হকিস্টিক ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে বেধরক মারধর করে এতে তিনজনের মাথা ফাটে ও একজনের হাত ভেঙ্গে যায়।
এ ঘটনায় নড়িয়া থানায় ১৪ জনকে আসামী করে একটি মামলা রুজু হলেও একজন আসামীকেও ধরতে পারেনি নড়িয়া থানা পুলিশ এরকমটাই জানালেন জমির মালিক আহত বিপ্লব দাস। মারামারির ঘটনার বিষয়ে নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্ম-কর্তা মঞ্জুরুল আখন্দ জানান, তারা ১ নভেম্বর একটি মামলা করেছে। আমরা তদন্ত করে দেখছি এবং আসামীদের ধরার জোর চেষ্টা চলছে।


error: Content is protected !!