সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ ইং, ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৭ই মুহাররম, ১৪৪৪ হিজরী
সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ ইং

শরীয়তপুর সরকারি কলেজে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত

শরীয়তপুর সরকারি কলেজে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত

১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে শরীয়তপুর সরকারি কলেজ শিক্ষক পরিষদের আয়োজনে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
গতকাল (শুক্রবার) শরীয়তপুর সরকারি কলেজ এর শিক্ষক পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এই আলোচনা সভায় শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. মনোয়ার হোসেন।
এসময় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক সোহানুর রহমান, ইংরেজী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো: ফজলুল করিম, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো: আব্দুর রশিদ, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো: ফজলুল হক সহ অন্যান্য শিক্ষকমন্ডলী।
সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, মো: আলিউর রহমান, মুহাম্মদ তানজির পারভেজ, মোহাম্মদ এমরান সরদার, মশিউর রহমান, আবদুস সোবহান বাবুল, শহীদুল ইসলাম পাহাড়, মনিরুজ্জামান, মোজাম্মেল হক সহ অন্যান্যরা।
বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের শেষ পর্যায়ে বাঙ্গালি জাতি যখন বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে ঠিক সেই মুহূর্তে জাতিকে মেধাশূন্য করার হীন চক্রান্তের অংশ হিসেবে পাকিস্তানের ঘাতক বাহিনী এবং তাদের দোসর আলবদর, আলশামস রাজাকার বাহিনী বাঙালি মেধাবী সন্তানদের এই দিন নির্মমভাবে হত্যা করে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথী তার বক্তব্যে এইসব বীর শহীদদের স্মরণ করে এই দিবসের গভীর তাৎপর্য ব্যাখ্যা করেন। তিনি বলেন, শহীদ বুদ্ধিজীবীগণ এই জাতিকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন। এই মেধাবী সন্তানরা জাতির অন্ধকার সময়ে বাতিঘর হিসেবে কাজ করছিলেন। তাদের হত্যার মধ্য দিয়ে বাঙালী জাতিকে গভীর অন্ধকারে নিমজ্জিত করার হীন প্রয়াস চালিয়েছিল খুনীচক্র।
কিন্তু ঘাতকদের সেই চাওয়া পূরণ হয়নি। বাংলাদেশ আজ বিশে^র মানচিত্রে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানো এক অনন্য দৃষ্টান্ত। বাংলাদেশ আজ বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্ব উন্নয়নশীল দেশের কাতারে।
অধ্যক্ষ মহোদয় তাঁর বক্তব্যে আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে ১৪ ই ডিসেম্বরের শহীদদের স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
সবশেষে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।


error: Content is protected !!