• ব্রেকিং নিউজ

    গোসাইরহাটে কারচুপির অভিযোগে চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ প্রার্থীর বিক্ষোভ মিছিল

    রুদ্রবার্তা প্রতিবেদক

    প্রকাশিত: ২৭ মার্চ ২০১৯ সময়: ৭:৩৮ পূর্বাহ্ণ 1533 বার

    গোসাইরহাটে কারচুপির অভিযোগে চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ প্রার্থীর বিক্ষোভ মিছিল

    সারা দেশের ১১৭টি উপজেলার ন্যায় গত রোববার শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনে ভোট গণনায় অনিয়ম ও এজেন্ট বের করা সহ আলাওলপুর তিনটি কেন্দ্রে পুনরায় নির্বাচনের অভিযোগ এনে ফলাফল প্রত্যাখান ও ভোট পুন:গণনা দাবীতে বিক্ষোভ করেছে প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকার প্রার্থী (সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান) সৈয়দ নাসির উদ্দীন। উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা যায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে বহিস্কারকৃত আওয়ামীলীগ নেতা ফজলুর রহমান ঢালী (আনারস মার্কা) নিয়ে ২২ হাজার ৪ শত ৯৯ ভোট পেয়ে বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামীলীগ নৌকার প্রার্থী সৈয়দ নাসির উদ্দীন পেয়েছেন ২১ হাজার ৫শত ৭৮ ভোট। মাত্র ৯শত ২১ ভোটের ব্যাবধানে পরাজিত হয়েছেন। ফল প্রকাশের পর সৈয়দ নাসির উদ্দীন কয়েক শত লোক নিয়ে নির্বাচন অফিসের সামনে ও স্থানীয় কোদালপুর বাজার, ইউনিয়নে পরিষদ চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল করে এর ফল বাতিলের দাবী জানায়। এ সময় সৈয়দ নাসির উদ্দীন ফলাফল বাতিল ও পুন:গণনার জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দাখিল করেন। লিখিত আবেদনে তিনি দাবী করেন ইদিলপুর ইউনিয়নে ভোট গ্রহন শেষে নৌকা মার্কার পোলিং এজেন্টকে ভয়ভীতি দেখিয়ে বের করে দেওয়া হয় এবং নৌকা মার্কায় সিল দেওয়া ৪ হাজার ব্যালট ডাবল সিল দিয়ে নষ্ট করা হয়। পুনরায় ভোট গণনা ও সামন্তসাহ ইউনিয়নে ভোট শুরু থেকে নৌকা মার্কার পোলিং এজেন্ট বের করে দিয়ে একই ভাবে গণনার কার্যক্রম চালানো হয়। আর আলাওলপুর তিনটি ভোট কেন্দ্রের পুনরায় নির্বাচন গ্রহন দাবী করেন। একই দাবীতে সৈয়দ নাসিরের সমর্থকরা রোববার রাতে বিক্ষোভ মিছিল করে। এ সময় গোসাইরহাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটানিং কর্মকর্তা আলমগীর হোসাইন বলেন আমার কার্যালয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ নাসির উদ্দীন আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকা মার্কার প্রার্থী কিছু কেন্দ্রের পুনরায় ভোট গণনার জন্য লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। আমি বলছি যে পুনরায় ভোট গণনা সহকারী রিটানিং কর্মকর্তার সুযোগ আর নেই। সৈয়দ নাসির আরো বলেন ইদিলপুর ইউপি ও সামন্তসাহ ইউপি বিশেষ করে এই দুইটি ইউনিয়নে যদি পোলিং এজেন্ট বের করে দিয়ে নৌকা মার্কায় ৪ হাজার ব্যালট সিল দেওয়া, ব্যালটি যদি ডাবল সিল দিয়ে নষ্ট না করে তবুও আমি অনেক ভোটের ব্যবধানে বিজয় হইতে পারতাম। বিজয় (আনারস) মার্কার আওয়ামীলীগ বহিস্কৃত প্রার্থী ফজলু ঢালী বলেন যে আমার লোকজনে কোন প্রার্থীর পোলিং এজেন্ট বের করে নাই অভিযোগটি সম্পূর্ন মিথ্যা। আমাকে জনগণ ভোট দিয়েছে আমি আল্লাহর রহমতে বিজয়ী হয়েছি।

    :: শেয়ার করুন ::

    Comments

    comments

    সংবাদটি ফেইসবুকে শেয়ার করুন

    দৈনিক রুদ্রবার্তা/শরীয়তপুর/২৭ মার্চ ২০১৯/


    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক রুদ্রবার্তা

  • error: নিউজ কপি করা নিষেধ!!