Friday 19th July 2024
Friday 19th July 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

জাজিরায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে ভূমিদুস্যদের হামলায় দুই মহিলা সহ আহত-৩

জাজিরায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে ভূমিদুস্যদের হামলায় দুই মহিলা সহ আহত-৩

শরীয়তপুর জেলার জাজিরা উপজেলার পশ্চিম নাওডোবা ইউনিয়নের আহাম্মদ চোকদারের কান্দি গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় দুই মহিলা সহ বেশ কয়েক জন আহত হয়েছে। আহতরা হচ্ছেন (বীরমুক্তিযোদ্ধা) আক্তার হোসেন চোকদারের স্ত্রী সোভা আক্তার (৫০) আক্তার চোকদারের আপন ভাইর বউ মমতাজ বেগম (৪৫) ও তনাই চোকদার (২৪)। হামলাকারীরা এ সময় বাড়িঘর কুপিয়ে মূল্যবান আসবাবপত্র নষ্ট করে এবং লুটপাট চালায়। এ ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভ বিরাজ করছে। আহতদের জাজিরা উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সরেজমিনে আহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জাজিরা উপজেলার পশ্চিম নাওডোবা ইউনিয়নের আহাম্মদ চোকদার কান্দি গ্রামের (বীরমুক্তিযোদ্ধা) আক্তার হোসেন চোকদার, লালচান চোকদার, আতাহার চোকদার গংদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে ভূমিদস্যু ঠান্ডু চোকদার ও সুলতান চোকদার এর সাথে। জোরপূর্বক একের পর এক দখল করার চেষ্টা করে ঠান্ডু চোকদার। এ নিয়ে এলাকায় দফায় দফায় সালিসি বৈঠক করা হয় কিন্তু সকল বাঁধা উপেক্ষা করে শুক্রবার দিবাগত রাত আনুমানিক ৩ টার সময় ঠান্ডু চোকদার ও সুলতান চোকদারের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা প্রতিপক্ষ (বীরমুক্তিযোদ্ধা) আক্তার হোসেন চোকদার বাড়িতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা বাড়িঘর কুপিয়ে ঘরের ভেতরে থাকা আসবাবপত্র ভাংচুর করে এবং লুটতরাজ চালায়। এছাড়া বাড়ির ভিতরে ইট পাটকেল মারতে থাকে। এ সময় বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করলে সন্ত্রাসীরা (বীরমুক্তিযোদ্ধা) আক্তার হোসেন চোকদার এর বৌও সভা আক্তার ও মমতাজ বেগম এর গলা থেকে মোট ৩ ভরি উজনের চেইন ছিনিয়ে নেন এবং সভা আক্তার ও মমতাজ বেগমকে বেদম মারধর করেন সন্ত্রাসীরা। এতে সভা ও মমতাজ সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত জাজিরা উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় জাজিরা থানায় জিডি হয়েছে জিডি নং ৩৩/১০০।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ঠান্ডু চোকদার বাড়িতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল নম্বরে জানতে চাইলে তিনি হামলার কথা শিকার করে বলেন হ্যাঁ হামলা করেছি আমর কাগজ পত্র থাকা সত্তেও তারা আমার জায়গা ছাড়েনা তাই হামলা করতে বাধ্য হয়েছি।