• ব্রেকিং নিউজ

    শরীয়তপুরে চাঁদা না দেওয়ায় সরকারী কাজে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ

    রুদ্রবার্তা প্রতিবেদক

    প্রকাশিত: ১৪ জুন ২০১৯ সময়: ৮:০৭ পূর্বাহ্ণ 967 বার

    শরীয়তপুরে চাঁদা না দেওয়ায় সরকারী কাজে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগ

    শরীয়তপুর সদর উপজেলায় চাঁদা না দেওয়ায় এলজিইজির আওতাধীন সড়ক ও কালভার্ট নির্মাণ কাজে বাঁধা ও শ্রমিকদের ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার (১২ জুন) বেলা ১১ টার দিকে বিনোদপুর ইউনিয়নের মুন্সী কান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
    জানা গেছে, বিনোদপুর ইউনিয়নের মুন্সী কান্দি গ্রামে এলজিইডির আওতাধীন ৫’শ কিলোমিটার রাস্তা কার্পেটিং ও তার সাথে একটি কালভার্ট নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। রফিকুল ইসলাম মিল্টন পাহাড় নামে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কাজটি করার কার্যাদেশ পায়। কার্যাদেশ পেয়ে ঠিকাদার বেলায়েত হোসেন পাহাড় বিধি অনুযায়ী নির্মাণ কাজ শুরু করেন। কাজ শুরু করার পর থেকে স্থানীয় কালু মুন্সী ও তার কিছু সাঙ্গপাঙ্গ ঠিকাদার বেলায়েত পাহাড়ের কাছে চাঁদা দাবি করে আসছে বলে অভিযোগ করেন বেলায়েত পাহাড়। চাঁদা না দেওয়ায় গত বুধবার (১২ জুন) বেলা ১১টার দিকে কালভার্টের ছাদ ঢালাই দেওয়ার সময় কালু মুন্সী ও তার কয়েকজন সহযোগি নির্মাণ কাজে বাঁধা দেয় এবং শ্রমিকদের ওপর হামলা করে। ভয়ে শ্রমিকরা একটি বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে সেখানে তাদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে উপজেলা প্রকৌশলী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে পুলিশ গিয়ে শ্রমিকদের উদ্ধার করে।
    ঠিকাদার বেলায়েত হোসেন পাহাড় বলেন, কাজ শুরুর পর থেকেই কালু মুন্সী ও তার কিছু সহযোগিরা আমার কাছে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে। তাদের অনৈতিক দাবি না মানায় কালভার্টের ঢালাই কাজে বাঁধা দেওয়া হয়েছে এবং আমার শ্রমিকদের মারধর ও তাদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে আমার শ্রমিকদের উদ্ধার করে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।
    শরীয়তপুর সদর উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ আলম বলেন, কালভার্টের ছাদ ঢালাই দেওয়ার সময় এলাকার কালু মুন্সী সহ কয়েকজন কাজে বাঁধা দিয়েছে এবং শ্রমিকদের ওপর হামলা করে। সরকারী কাজে বাঁধা ও শ্রমিকদের ওপর হামলা করা এটা অত্যন্ত দুঃখ জনক।
    শরীয়তপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহাবুর রহমান শেখ বলেন, বিনোদপুরে এলজিইডির অধিনে সড়ক ও কালভার্ট নির্মাণ কাজে বাঁধা ও শ্রমিকদের ওপর হামলার খবর পেয়ে আমি তাৎক্ষনিক উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার ও পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছি। সরকারী কাজে বাঁধা দিয়ে এবং শ্রমিকদের ওপর হামলা করে তারা গুরুতর অন্যায় করেছে। তারা কিছুতেই এ কাজ করতে পারে না। এটা আমাদের জন্য বিব্রতকর।

    :: শেয়ার করুন ::

    Comments

    comments

    সংবাদটি ফেইসবুকে শেয়ার করুন

    দৈনিক রুদ্রবার্তা/শরীয়তপুর/১৪ জুন ২০১৯/


    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে দৈনিক রুদ্রবার্তা

  • error: নিউজ কপি করা নিষেধ!!