রবিবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী
রবিবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং

শরীয়তপুর ইউপি নির্বাচনে নৌকার ৪ জন, বিদ্রোহী ৫ জন বিজয়ী

আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা মার্কার বিজয়ী প্রার্থী আব্দুল হামিদ সাকিদার, আ: সালাম খান, আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম ঢালী ও মো: জামাল হোসাইন । ছবি- দৈনিক রুদ্রবার্তা

শরীয়তপুর সদর উপজেলায় ৯টিতে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার ২ জন ও অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী ৫ জন ও আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার ২জন বিজয়ী হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর শরীয়তপুর সদর উপজেলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন-২০২১ এ ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে ১০টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ইতিমধ্যে বিনোদপুর ও চন্দ্রপুর ইউনিয়নে ২জন চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। চিতলিয়া ইউনিয়নে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। বাকি ৭টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ২টিতে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী এবং ৫টিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

ডোমসার ইউনিয়নে আনারস মার্কা নিয়ে ৫৯৬৬ ভোট পেয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী মাষ্টার মজিবুর রহমান বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী মিজান মোহাম্মদ খান নৌকা মার্কা নিয়ে ২৮৭৬ ভোট পেয়েছেন, মোট ভোটার সংখ্যা ১৩১২৭।

পালং ইউনিয়নে আনারস মার্কা নিয়ে ২৪৪৫ ভোট পেয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী কেএম আজাহার হোসেন বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী মো: আবুল হোসেন দেওয়ান ২২৫৩ ভোট পেয়েছেন, মোট ভোটার সংখ্যা ৬৯৪৭।

আংগারিয়া ইউনিয়নে আনারস মার্কা নিয়ে ৬১৪৭ ভোট পেয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী মো: আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী আসমা আকতার ৪৫৫০ ভোট পেয়েছেন, মোট ভোটার সংখ্যা ১৭১৫১।

রুদ্রকর ইউনিয়নে নৌকা মার্কা নিয়ে ৭০৫৮ ভোট পেয়ে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম ঢালী বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী হাবিবুর রহমান ঢালী আনারস মার্কা নিয়ে ৪৯২৮ ভোট পেয়েছেন, মোট ভোটার সংখ্যা ১৮৯৪৯।

তুলাসার ইউনিয়নে নৌকা মার্কা নিয়ে ৩৫৪৯ ভোট পেয়ে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী মো: জামাল হোসাইন ফকির বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী জাহিদ ফকির আনারস মার্কা নিয়ে ২৩৩৯ ভোট পেয়েছেন, মোট ভোটার সংখ্যা ৭৯২৫।

মাহমুদপুর ইউনিয়নে আনারস মার্কা নিয়ে ১৫৮২ ভোট পেয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী শাহজাহান ঢালী বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো: শাহআলম মুন্সী ১৫১৭ ভোট পেয়েছেন ও আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী নৌকা মার্কা নিয়ে ১০৯১ভোট পেয়েছেন, মোট ভোটার সংখ্যা ৫৫১৫।

এবং শৌলপাড়া ইউনিয়নে আনারস মার্কা নিয়ে ২৪৭৩ ভোট পেয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী আ: মান্নান খান ভাষানী বিজয়ী হয়েছেন, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী মো: আলমগীর হোসেন নৌকা মার্কা নিয়ে ২৪৩৮ ভোট পেয়েছেন, এছাড়া অন্য আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী(স্বতন্ত্র) প্রার্থী ইয়াছিন হাওলাদার মোটরসাইকেল মার্কা নিয়ে ২৩৭৮ ভোট পেয়েছেন, মোট ভোটার সংখ্যা ১২২৭৩।

বিনোদপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ সাকিদার ও চন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী আব্দুস সালাম খান নির্বাচিত হয়েছেন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী চেয়ারম্যান, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য এবং সাধারন আসনের সদস্যদের ফলাফল সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনদীপ ঘরাই এবং জেলা নির্বাচন অফিসার জাহিদ হাসান-এর উপস্থিতিতে শৌলপাড়া, চন্দ্রপুর ও ডোমসার ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ সোহরাব হোসেন, বিনোদপুর, চিতলিয়া ও তুলাসার ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার সদর উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ আলমগীর হোসেন, পালং ও মাহমুদপুর ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো: শহীদ হোসেন এবং আংগারিয়া ও রুদ্রকর ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: তাজুল ইসলাম বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর রাতে সদর উপজেলা অডিটোরিয়ামে ঘোষনা করেন।