রবিবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১লা জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী
রবিবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং

বিনোদপুর ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার প্রার্থীকে বিভিন্ন হুমকি ও নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা, সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি

বিনোদপুর ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার প্রার্থীকে বিভিন্ন হুমকি ও নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা, সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি

শরীয়তপুর সদর উপজেলা বিনোদপুর ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ডে ইউপি মেম্বার পদপ্রার্থী মোঃ এমদাদ মাদবরকে মারপিটের হুমকি ও নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা প্রদান করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগটি ওঠে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মেম্বার পদপ্রার্থী মোঃ কোব্বাছ মাদবর ও তার সর্মথকদের বিরুদ্ধে।

এই ঘটনায় মেম্বার পদপ্রার্থী এমদাদ মাদবর-এর ছেলে মোঃ ফারুক মাদবর-শরীয়তপুর সদর উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা, উপজেলা র্নিবাহী কর্মকর্তা ও শরীয়তপুর পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মেম্বার পদপ্রার্থী এমদাদ মাদবর সাংবাদিকদের বলেন, আমার প্রতিদ্বন্দ্বী কোব্বাছ মাদবর, ইতোপূর্বে আমাকে নির্বাচন থেকে সরানোর জন্য নানা প্রকার অপপ্রচার চালিয়েছে। এখন আবার নির্বাচনী প্রচারণায় বিভিন্ন ভাবে বাধা প্রদান করছেন, আমার নির্বাচনী এলাকায় ভোটারদের কাছে ভোট চাইতে গেলে আমি সহ আমার সমর্থকদের মারপিটের হুমকি দিচ্ছে। গত ১লা নভেম্বর সন্ধা ৭টার দিকে বিনোদপুর ঢালি কান্দী ছাত্তার মাদবরের বাড়ির সামনে আমার সমর্থক আঃ মান্নান মুন্সীকে পিটিয়ে ও কূঁপিয়ে জখম করেছে কোব্বাছ মাদবরের সমর্থকরা। বর্তমানে মান্নান মূন্সী শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। আমার স্ত্রী ও আমার মেয়ে ইসমোতারা বেগম আমার সর্মথকদের নিয়ে আমার জন্য এলাকায় ভোট চাইতে গেলে, কোব্বাছ মাদবর ও তার সর্মথকদের নিয়ে আমার স্ত্রী ও মেয়ে কে উচ্চবাক্য ও বিভিন্ন অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। আমার ছেলে ফারুক মাদবর’কে প্রণনাশের হুমকি দিচ্ছে। কোব্বাছ মাদবর পূর্বে থেকেই সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে বিশ্বাসী, এলাকায় সহিংসতা সৃষ্টিকারী একজন ব্যক্তি। জনগণনের ভোটে বিশ্বাসী না হয়ে সে এম.পি সাহেবের বড় ভাই ও সদর উপজেলা আওয়মী লীগ নেতা পরিচয় সাধারণ জনগণকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে এবং জোরপূর্বক জনগণের ভোট অধিকার ছিনিয়ে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে। যার কারনে আমি ভয়ে শঙ্কিত। তাই আমি নির্বাচন পরিচালনাকারী কর্মকর্তা, প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে আমার দাবী যে, আগামী ১১ অক্টোবর শরীয়তপুর সদর উপজেলা বিনোদপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড বাসীকে একটি অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দিবেন। শরীয়তপুর সদর উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, লিখিত অভিযোগের কপি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যলয় ও থানায় পাঠানো হয়েছে।

এমদাদ মাদবরের ছেলে ফারুক মাদবর বলেন, আমাদের নির্বাচন থেকে সরানোর জন্য নানাভাবে কোব্বাজ মাদবর হুমকি ধমকি দিচ্ছে। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য শরীয়তপুর সদর উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা, উপজেলা র্নিবাহী কর্মকর্তা ও শরীয়তপুর পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করছি এবং সুষ্ঠু নির্বাচন দাবি করছি।

এমদাদ মাদবরের মেয়ে ইসমোতারা বলেন, আমি আমার বাবার নির্বাচনী প্রচারণায় গেলে আমার বাবার প্রতিপক্ষ কোব্বাজ মাদবরের লোকজন হুমকি দেয় এবং আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।

এ বিষয়ে কোব্বাছ মাদবর বলেন, আমি কাউকে হুমকি ধমকি দেইনি। আমি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। আমার প্রতিপক্ষ গতবার আমার থেকে ভোট ছিনতাই করে মেম্বার হয়েছে। এবার যদি আমার ভোট ছিনতাই করতে আসে, তাহলে আমি প্রতিহত করবো।