Saturday 24th February 2024
Saturday 24th February 2024

Notice: Undefined index: top-menu-onoff-sm in /home/hongkarc/rudrabarta.net/wp-content/themes/newsuncode/lib/part/top-part.php on line 67

শরীয়তপুর বুড়িরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে মহিলা সমাবেশ

শরীয়তপুর বুড়িরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে মহিলা সমাবেশ

শরীয়তপুর জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে বুড়িরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে মহিলা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত ২৩ মে শরীয়তপুর জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে সকাল ১০ টায় শরীয়তপুরের বুড়িরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে মিলনায়তনে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি(এপিএ) এর প্রকল্পের আওতায় মহিলা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা তথ্য অফিসার শাহিন মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা অফিসার শ্যামল চন্দ্র শর্মা। বিশেষ অতিথি ছিলেন বুড়িরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সম্বুনাথ পোদ্দার।

সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল কুদ্দুস খান ও সহকারী শিক্ষক পলাশ চন্দ্র রায়। এছাড়া স্থানীয় নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় সুধীজনসহ বিপুল সংখ্যক নারীরা সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা শিক্ষা অফিসার শ্যামল চন্দ্র শর্মা বলেন, আমাদের দেশে নারীরা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখছে। তিনি বলেন নারীরা তাদের অর্থনৈতিক ভূমিকার পাশাপাশি সমাজ থেকে বাল্যবিবাহ, মাদক, যৌতুক, গুজব ও অপপ্রচার দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। বাল্যবিবাহ আমাদের সামাজিক ব্যাধি, নারীদের বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা করে শিক্ষা-দীক্ষা ও কারিগরি শিক্ষায় দক্ষ করে মানবসম্পদে পরিনত করতে পারলে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হবে। জনাব সম্ভুনাথ পোদ্দার, প্রধান শিক্ষক, বুড়িরহাট উচ্চ বিদ্যালয় বলেন স্মার্ট বাংলাদেশের উপযোগী দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে নারীরাই আসল কারিগর কেননা নারীরা পরিবারের দেখাশুনা ও ব্যবস্থাপনা করেন। সমাজ ও রাষ্ট্র থেকে বাল্যবিবাহ ও যৌতুক, মাদক, সন্ত্রাস, গুজব ও অপপ্রচার, নারী নির্যাতন প্রভূতি সমস্যা দূরীকরণে নারীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। এসব সমস্যা দূরীকরণে নারীদের এগিয়ে আাসার উপর গুরুত্বারোপ করেন। বক্তারা বলেন বাল্যবিবাহ, মাদক, নারী ও শিশু প্রতিসহিংতা ও গুজব ও অপপ্রচার সমাজ ও রাষ্ট্রের উন্নয়নের জন্য বড় বাধা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত ও সমৃদ্ধ ডিজিটাল গড়তে হলে আমাদের প্রত্যকের জায়গা থেকে এসব সমস্যা সমাধানে ভূমিকা পালন করতে হবে।

#