শনিবার, ১লা অক্টোবর, ২০২২ ইং, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
শনিবার, ১লা অক্টোবর, ২০২২ ইং

হাজী শরীয়তুল্লাহ কলেজে একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ

হাজী শরীয়তুল্লাহ কলেজে একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ

ভেদরগঞ্জের সখিপুর হাজী শরীয়তুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ২০১৮ সালের একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি নবীন ছাত্র-ছাত্রীদের বরণ করে নিতে নবীন বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে কর্তৃপক্ষ। সোমবার দুপুর ১২টায় অনুষ্ঠিত নবীন বরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, কলেজের অধ্যক্ষ আবুল বাশার আল-আজাদ। প্রধান অতিথি ছিলেন, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটির সভাপতি, হাজী শরীয়তুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের গভর্ণিং বডির সভাপতি ও শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কর্ণেল (অবঃ) শওকত আলী এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কুন্ডেরচর কালু বেপারী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ হাজী মুহাম্মদ সুরুজ মিয়া, সখিপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মঞ্জুরুল ইসলাম, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন, হাজী শরীয়তুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের গভর্ণিং বডির দাতা সদস্য আজমল বেপারী, সদস্য দাদন সরদার, সাবেক সদস্য ডা. আবুল কালাম আজাদ প্রমূখ।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই উপস্থিত অতিথিদের ক্যাপ পড়িয়ে ও ফুলের সুভেচ্ছায় বরণ করা হয়। একই সাথে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি মানবিক, ব্যবসায় শিক্ষা ও বিজ্ঞান বিভাগের ২৪৯ জন ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করেন দ্বাদশ শ্রেণীতে অধ্যয়ণরত আবির ও সোহাগী। পরে নতুন ছাত্র-ছাত্রীদের ফুলের শুভেচ্ছায় বরণ করা হয়। এ সময় বিভিন্ন বিভাগে নব-নিযুক্ত প্রভাষকদের ফুলের শুভেচ্ছায় বরণ ও পরিচয় করা হয়।
অনুষ্ঠানের সভাপতি ও কলেজের অধ্যক্ষ আবুল বাশার আল-আজাদ শুভেচ্ছা বক্তব্যে হাজী শরীয়তুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ১৯৯৪ সালে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়ে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান বিভাগ খোলার অনুমতি পেয়েছে। উচ্চ মাধ্যমিক থেকে পর্যায়ক্রমে বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে রূপান্তরিত হয়েছে। তবে প্রতিষ্ঠানটি কাঠামোগত তেমন কোন উন্নয়ন হয়নি। বর্ষার দিনে এক ভবন থেকে অন্য ভবনে যেতে কাঁদা পানি পেড়িয়ে যেতে হয়। একটি রিং/লিংক রোড করা হলে এ সমস্যা সমাধান সম্ভব। বাউন্ডারী দেয়ালের অভাবে কলেজটি অরক্ষিত থাকে। তাই বাউন্ডারী দেয়াল ও কলেজের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য প্রধান ফটকটি আধুনিক করা প্রয়োজন। কয়েক বছর পূর্বে নির্মিত শহীদ মিনার টাইল্স না করায় দিন দিন নষ্ট হচ্ছে। কলেজটি জেলার শ্রেষ্ঠ কলেজ, বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার ফলাফলও সন্তোষজন। তাই কলেজটি জাতীয় করণের দাবীও করা হয় প্রধান অতিথির নিকট।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কর্ণেল অবঃ শওকত আলী এমপি অসুস্থতা জনিত করণে বক্তব্য রাখতে পারেননি। তার পক্ষে বক্তব্য রাখেন, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন। তিনি প্রধান অতিথির পক্ষে বক্তব্যে কলেজের সকল সমস্যা দূরীকরণে আশ্বস্ত করেছেন।


error: Content is protected !!