শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী
শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

জাজিরায় আ’লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ ১৫জন আহত

জাজিরায় আ’লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ ১৫জন আহত

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। রোববার ২৫ জুলাই সকাল থেকে জাজিরা বাজার সংলগ্ন এলাকায় দফায় দফায় দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র ও হাতবোমা নিয়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয় পক্ষের অর্ধশতাধিক ঘরবাড়ি ভাংচুর করা হয়। আহতদের জাজিরা উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের ৭ জনকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা দৈনিক রুদ্রবার্তাকে জানান, এলাকায় আধিপত্য কেন্দ্র করে জাজিরা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিল ইলিয়াছ মাদবর ও জাজিরা উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সেলিম মাদবর গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সেলিম মাদবরের পক্ষে ছিলেন মজিবর ফকির এবং ইলিয়াস মাদবরের পক্ষে ছিলেন বাবুল মাদবর ও মোশারফ বেপারী।

পূর্ব শত্রুতার জেরে রোববার সকালে ইলিয়াছ মাদবরের লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র ও হাতবোমা নিয়ে সেলিম মাদবরের বাড়িতে হামলা চালায়। পরে সেলিম মাদবরের লোকজন প্রতিপক্ষের বাড়িঘরে হামলা করে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, বোমা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এ সময় অর্ধশতাধিক ককটেল বোমা বিষ্ফোরণ হয়। ভাঙচুর করা হয় ৪০ টিরও অধিক ঘরবাড়ি। সংঘর্ষ চলাকালীন তিন পুলিশ সদস্যসহ উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়েন। আটক করা হয় উভয় পক্ষের ৭জনকে। এ ঘটনার বিষয়ে জানার জন্য উভয়পক্ষের কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান দৈনিক রুদ্রবার্তাকে জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে তিন পুলিশ সদস্যসহ উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা ও সাত জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।