সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ ইং, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২২শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরী
সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ ইং

দুর্বৃত্তদের আগুন থেকে রক্ষা পেলেন মুক্তিযোদ্ধা ও আ’লীগ নেতার পরিবার

দুর্বৃত্তদের আগুন থেকে রক্ষা পেলেন মুক্তিযোদ্ধা ও আ’লীগ নেতার পরিবার

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার নাওডোবা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদারের বাসভবনে গভীর রাতে দুর্বৃত্তরা আগুন লাগিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে অল্পের জন্যে রক্ষা পেয়েছে মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদার সহ পরিবারের লোকজন। গত সোমবার (৯ মে) দিনগত রাত আড়াই টার দিকে নাওডোবা বাজার সংলগ্ন হাজী আলীমদ্দিন হাওলাদার কান্দি গ্রামে এই এ ঘটনা ঘটে।

মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদারের পরিবারের অভিযোগ, প্রতিদিনের ন্যায় সোমবার রাতের খাওয়া দাওয়া সেরে পরিবারের সবাই ঘুমিয়ে পড়েন। গভীর রাতে ভবনের একটি কক্ষের জানালা দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। আগুনে জানালার পর্দা, মশারী ও কাঁথা কাপড় পুড়তে থাকলে ওই কক্ষের লোকজন টের পেয়ে ডাক চিৎকার করে উঠে। ডাক চিৎকার শুনে পরিবারের অন্য সদস্য ও আশপাশের লোকজন ছুটে গিয়ে আগুন নিভান। এতে অল্পের জন্যে আগুনের হাত থেকে রক্ষা পান বাসভবন সহ মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদারের স্ত্রী, নাতি সহ পুরো পরিবার। এর আগের দিন রোববার রাত ৮টার দিকে মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদারের পাঁচ বছরের নাতি তাশরিফা ইসলাম তিশাকে বাড়ির সামনে থেকে এক অজ্ঞাত লোক অপহরণ করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এসময় এলাকার এক লোক দেখতে পেলে অপহরণকারী মেয়েটিকে ফেলে পালিয়ে যায়।
২০০৫ সালে মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদারের বড় ছেলে নাওডোবা বাজারের ব্যবসায়ী দিদারুল হাওলাদারকে অপহরণ করে সিলেটে নিয়ে হত্যা করা হয়। এ হত্যা মামলায় স্থানীয় এক আসামীর আদালতে সাজা হয়।
মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদারের পরিবার মনে করেন পূর্বের শত্রুরা আবারও তাদের পরিবারের বড় ধরনের ক্ষতি করার জন্য অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

মুক্তিযোদ্ধা মাষ্টার আব্দুল কাদির হাওলাদারের ছেলে মাষ্টার কিরণ মিয়া হাওলাদার বলেন, এ ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। পরিবারের সবাই আতংকের মধ্যে আছি। এ ঘটনা আমরা পুলিশকে জানিয়েছি। পুলিশ এসে দেখে গেছে। এই দুষ্কৃতকারীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানাই।

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিন্টু প্রমুখ বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় ওই মুক্তিযোদ্ধার পরিবার মামলা করতে চাইলে আইনী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।