বুধবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
বুধবার, ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ ইং
শরীয়তপুরে ডামুড্যায়

তিন বছরের শিশুকণ্যা যৌন নিপীড়নের শিকার !!

তিন বছরের শিশুকণ্যা যৌন নিপীড়নের শিকার !!

শরীয়তপুরে ডামুড্যা উপজেলার ধানকাঠি ইউনিয়নের নতুন বাজার বাহেরচর গ্রামের শুক্রবার রাতে ৩ বছরের এক শিশু কন্যাকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ রক্তাক্ত করার অভিযোগ উঠেছে।

১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ধর্ষক নজমুল ধানকাঠি ইউনিয়নের নতুন বাজার তার শশুরবাড়ি বেড়াতে এসে তার আত্মীয়ের ৩ বছরের শিশু কন্যার সাথে এই ঘটনা ঘটায়। বাড়িতে গিয়ে শিশুটির পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি। তারা শরীয়তপুর আদালতে গেছে। তবে ঘটনাটি এলাকার সাবাই জানে। শিশুটির পরিবারের সাথে মুঠোফোন জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার শিশু কন্যা সন্তানের সঙ্গে যা হয়েছে আমি তার বিচার চাই।

বাড়িতে থাকা শিশুটির আত্মীয় বলেন, শিশুটি সহ বাবা, মা সবাই ডামুড্যা থানায় গেছে। নাজমুল শিশুটিকে কোলে নিয়ে টেলিভিশন দেখতে ছিলো। তখন সে বারবার ঘরের পর্দা টেনে দিচ্ছিল। নাজমুলকে পর্দা টেনে দিতে মানা করি। আমার ভাবী তখন নামাজ পড়তে ছিলো। আমি কিছুক্ষণের জন্য বাহিরে যাই। পরে শিশুটি চিৎকার করলে আমরা শিশুটিকে উদ্ধার করে দেখি ওর যৌনাঙ্গ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। কাপড় রক্তে লাল হয়ে গেছে।
অভিযুক্তর স্ত্রী রাহিমা বলেন, আমার স্বামী বলেছেন, টিভি দেখার সময় কোল থেকে পড়ে গিয়ে এমন হয়েছে। নাজমুলের শাশুড়ি রিজিয়া বলেন, এগুলো ষড়যন্ত্র। তাদের সাথে আমাদের কোন শত্রæতা নাই। শশুর আবুল হাসেম হাওলাদার বলেন, ওই ঘটনার পর কিছু বুঝে উঠার আগেই আমার জামাইকে ধরে কিল-ঘুষি মারতে থাকে।

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সজল পাল বলেন, শিশু কন্যাকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ নিয়ে (আজ শনিবার) শিশুটির পিতা আসলে আমরা ঘটনাস্থালে গিয়ে আসামীকে আটক করে আদালতে পাঠাই। শিশুটিকে হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ডামুড্যা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহদী হাসান বলেন, শিশু কন্যাকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেলে অপরাধীর বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের মামলা হয়েছে। মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা সজল কুমার পাল। আসামি নাজমুলকে গ্রেফতার করে কোর্টে চালান করে দেয়া হয়েছে।