বুধবার, ৩রা জুন, ২০২০ ইং, ২০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী
বুধবার, ৩রা জুন, ২০২০ ইং

গোসাইরহাটে ঘরে একা পেয়ে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণ

গোসাইরহাটে ঘরে একা পেয়ে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণ

শরীয়তপুর গোসাইরহাট উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের জুসিরগাও নন্দি গ্রামে শারীরিক-বুদ্ধি প্রতিবন্ধীকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে।
২১ অক্টোবর রাত ৮ টার সময় মৃত হরি চন্দ্র ঢাকী এর স্ত্রী গীতা রাণী, প্রতিবন্ধী বিমলাকে একা বাড়িতে রেখে হিন্দু ধর্মীয় অনুষ্ঠানে প্রতিবেশীর বাড়িতে যায়। সেই সুযোগে প্রতিবেশী শ্যামল বৈদ্যর পুত্র অপু বৈদ্য (১৭) অসৎ উদ্দেশ্যে বিমলা রাণীর ঘরে ঢুকে শারীরিক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিমলা রাণী (৩০) কে জোর পূর্বক ধর্ষন করে পালিয়ে যায়।
ঐ রাতে সাড়ে ১০ টার দিকে ধর্ষনের স্বীকার বিমলা রাণীর পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে আসলে বিমলা রাণী পরিবারের সবার কাছে ধর্ষনের কথা বলেন। প্রাথমিক পর্যায়ে মা গীতা রাণী ইজ্জতের দিকে তাকিয়ে ধর্ষনের ঘটনাটি গোপন রাখতে চাইলে ও ধর্ষনের স্বীকার বিমলা রাণীর স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটলে পরের দিন ২২ অক্টোবর সকাল ১০ টার দিকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে শারীরিক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ধর্ষনের স্বীকার বিমলা রাণীর চিকিৎসা চলছে।
পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষনকারী অপু বৈদ্য (১৭) গোসাইরহাট এর ইদিলপুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।
এদিকে ২২ অক্টোবর বেলা তিনটার দিকে বিমলা রাণীর ভাই সুমন চন্দ্র ঢাকী এই ধর্ষনের ঘটনায় বাদি হয়ে গোসাইরহাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।
গোসাইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সেলিম মিয়ার সাথে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি বলেন, ধর্ষনের ঘটনাটি কে কেন্দ্র করে বিমলা রাণীর ভাই সুমন চন্দ্র ঢাকী বাদি হয়ে একটি মামলার দায়ের করে।
মূল অপরাধী কে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।