বৃহস্পতিবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ ইং, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৩রা রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরী
বৃহস্পতিবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ ইং

নড়িয়ায় গাঙচিল পরিবারের পক্ষ থেকে ইফতার ও খাদ্যসামগ্রী উপহার

নড়িয়ায় গাঙচিল পরিবারের পক্ষ থেকে ইফতার ও খাদ্যসামগ্রী উপহার
নড়িয়ায় গাঙচিল পরিবারের পক্ষ থেকে ইফতার ও খাদ্যসামগ্রী উপহার

করোনা ভাইরাসের দুরাবস্থায় অস্বচ্ছলতার স্বীকার হওয়া পরিবারের মাঝে ইফতার ও খাদ্যসামগ্রী উপহার দিয়েছে গাঙচিল স্পোর্টিং ক্লাব ও জনকল্যাণ সংস্থা। ৭ই মে বৃহস্পতিবার সকালে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ভি. আই. পি. মোড় অ লে ১৬০ টি পরিবারের গৃহে এই উপহার পৌঁছে দেয় গাঙচিল পরিবারের সদস্যবৃন্দ।

গাঙচিলের সভাপতি সুমন হোসাইন মাল জানান- মাদকমুক্ত, সচেতন ও সুন্দর সমাজ গঠনের অঙ্গীকার নিয়ে এই প্রতিষ্ঠান ২০০৪ সালে যাত্রা শুরু করে। শুরু থেকেই বিভিন্ন সামাজিক কর্মসূচির পাশাপাশি বাৎসরিকভাবে খেলাধুলা, ওয়াজ মাহফিল, সাময়িকী প্রকাশ ও ইফতার মাহফিল ছিল আমাদের প্রধান কর্মসূচি। এবার করোনা প্রেক্ষাপটে ইফতার ও খাদ্যসামগ্রী উপহার দেয়ার কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

সাধারণ সম্পাদক মনির আহমদ জানান- গাঙচিল এলাকাবাসীর কাছে বিশ্বস্ততা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে, মানুষের দোয়া ও ভালোবাসাই এই প্রতিষ্ঠানের সফলতা।

অর্থ সম্পাদক আলমগীর পাইক জানান- এই কর্মসূচির সিংহভাগ অর্থায়নে ছিলেন গাঙচিলের প্রতিষ্ঠাতা সদস্যবৃন্দ। আমাদের পার্শ্ববর্তী আল-মদিনা জামে মসজিদ পুননির্মাণে গাঙচিল থেকে বৃহৎ সহায়তা দেয়া হচ্ছে তবুও করোনার ভয়াবহতা বৃদ্ধি পেলে পুনরায় কর্মসূচি হাতে নেবে গাঙচিল পরিবার।

সমাজকল্যাণ সম্পাদক রাজীব মাল জানান, ১৬০টি পরিবারের প্রতিটি প্যাকেজে ১০ কেজি চাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি করে ডাল, চিনি, পেয়াজ, হাফ কেজি বুট, ১ লিটার তেল ও ১ টি সাবান ছিল। নদীভাঙা মানুষের দুঃখ-দুর্দশায় গাঙচিল পরিবার সবসময় পাশে থাকবে।

খেলাধুলা ও আর্তমানবতার সেবার ২০০৪ ইং সালে স্থানীয় তরুণদের নিয়ে এই প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠা করেন মন্টু মাল, ফারুক শেখ, স্বপন হাওলাদার, ফারুক শেখ, হোসাইন ঢালী, মিলন ঢালী, রানা পাইক, বাদল মৃধা, মাসুম ভুঁইয়া, রিপন মাঝী, নিরব মাল ও মমিন মৃধা।

মাদকমুক্ত, শিক্ষিত ও সচেতন সমাজ গঠনে নিরন্তর কাজ করে চলেছে গাঙচিল স্পোর্টিং ক্লাব ও জনকল্যাণ সংস্থা।


error: Content is protected !!