শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী
শুক্রবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

মজিদ-জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজে  শুরু হয়েছে ক্লাস

মজিদ-জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজে  শুরু হয়েছে ক্লাস

প্রায় দেড় বছর পর খুলেছে স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা। আবারও প্রাণ ফিরে পেয়েছে শিক্ষা প্রাঙ্গণ। রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর সকাল থেকে সারা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ন্যায় শরীয়তপুরের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান মজিদ-জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজে  শুরু হয়েছে ক্লাস।

মজিদ-জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজের  প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক বাংলাদেশ পুলিশের সাবেক আইজিপি একেএম শহীদুল হক পিপিএম, বিপিএম স্ব-শরীরে ক্লাসে আসা শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরন করে নেন এবং প্রত্যেক শিক্ষার্থীদের দুটি করে মাস্ক প্রদান করেন। এ সময় মজিদ-জরিনা স্কুল এন্ড কলেজ ফাউন্ডেশনের অধ্যক্ষ ফরিদ আল হোসাইনসহ অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন।

মজিদ-জরিনা ফাউন্ডেশন স্কুল এন্ড কলেজেরর প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক বাংলাদেশ পুলিশের সাবেক আইজিপি একেএম শহীদুল হক শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে এ সময় বলেন, প্রায় দেড় বছর পর আজ তোমাদের ক্লাস শুরু হয়েছে। তোমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ক্লাস করতে হবে। করোনার প্রকোপ যদি আবার বৃদ্ধি পায়, তাহলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আবার বন্ধ হয়ে যাবে। এজন্য আমাদের সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে এবং এটা যার যার নিজ বাড়িতেও প্রচার চালাতে হবে। পরে সকলের মঙ্গল কামনা করেন সাবেক এই আইজিপি।

প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ ফরিদ আল হোসাইন দৈনিক রুদ্রবার্তাকে বলেন, বই-খাতা নিয়ে সকাল সকালই স্কুল-কলেজে হাজির শিক্ষার্থীরা। অনেক দিন পর পুরনো বন্ধুদের কাছে পেয়ে উচ্ছ্বসিত তারা। সরকারের নির্দেশনা পালন করে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে প্রবেশ করানো হচ্ছে। যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানার সব নিয়ম মানছেন তারা। আজ ক্লাস হবে কেবল ৫ম ও ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের। আর বাকিদের জন্য স্কুলগুলো তৈরি করেছে আলাদা আলাদা রুটিন মোতাবেক। স্কুলগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি রক্ষার জন্য নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। মাস্ক পরা ও হাত ধোয়া নিশ্চিতে নেয়া হয়েছে নানা ব্যবস্থা। শারীরিক দুরত্ব নিশ্চিতে ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। আর প্রতি বেঞ্চে দু’জন করে তৈরী করা হয়েছে আসন বিন্যাস।

এছাড়া শিক্ষার্থীরা দেড় বছর পর ক্লাসে এসে খুশি। শিক্ষকগণ শিক্ষার্থীদের কাছে পেয়ে উচ্ছ্বসিত এবং অবিভাবকগণও ছেলেমেয়েদের স্কুল-কলেজের ক্লাস শুরুতে হয়েছেন আনন্দিত।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারির কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। করোনাভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা থেকে শুরুতে ১৪ দিনের জন্য ছুটি দেয়া হয়েছিল। কিন্তু বেশ কয়েক দফায় সেই ছুটি বাড়িয়ে প্রায় দেড় বছর পর খুললো স্কুল ও কলেজ। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হচ্ছে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানার শর্তে। ভীড় এড়াতে প্রতিষ্ঠাগুলোতে অ্যাসেম্বলিও করতেও নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। বিদ্যালয়ে ঢোকা ও বের হওয়ার আলাদা রাস্তা রাখতেও বলা হয়েছে।
স্কুল-কলেজ ক্লাস শুরু হলেও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থাকছে বন্ধ। তবে সেগুলোও খুব শীঘ্রই খুলে দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
#